ঢাকা ১০:০৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হিলি বন্দর দিয়ে আলু আমদানি, কমতে পারে দাম

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৫:৩৩:৪২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ মার্চ ২০২৪ ১৯ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধি:

ভরা মৌসুমেও ধীরে ধীরে বাড়ছে আলুর দাম। তাই এক মাস বন্ধ থাকার পর দিনাজপুরের হিলি বন্দর দিয়ে আবারও ভারত থেকে আলু আমদানি শুরু হয়েছে।

শনিবার (৯ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ভারতীয় আলু বোঝাই একটি ট্রাক হিলি স্থলবন্দরে প্রবেশ করে। এর আগে লোকসানের আশঙ্কায় ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহ থেকে আলু আমদানি বন্ধ করে দেন ব্যবসায়ীরা।

হিলি স্থলবন্দর দিয়ে প্রথম দিনে তিনটি ভারতীয় ট্রাকে ৬৯ টন আলু আমদানি হয়েছে বলে জানা গেছে।

হিলি স্থলবন্দরের আলু আমদানিকারক কবির হোসেন বাবু জানান, হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে ৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ভারত থেকে আলু আমদানি করা হয়। কিন্তু আলু আমদানিতে লোকসানের কারণে আমরা এক মাস আলু আমদানি বন্ধ করে দিয়েছি। বর্তমানে দেশি আলুর বাজারদর একটু বেশি থাকায় বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে আবারও আলু আমদানি শুরু করেছি। প্রথম দিনে আমরা ৬৯ টন আলু আমদানি করেছি।

হিলি উদ্ভিদ রোগ নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রের উপ-সহকারী ইউসুফ আলী জানান, দেশে আলুর বাজার নিয়ন্ত্রণে গত মাসের ১ ফেব্রুয়ারি ভারত থেকে আলু আমদানির অনুমতি দেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। হিলি বন্দরের ৫২ আমদানিকারক ৩৫ হাজার টন আলু আমদানির অনুমতি পেয়েছেন। এরপর ৩ ফেব্রুয়ারি ভারত থেকে আলু আমদানি শুরু করেন আমদানিকারকরা। আলু আমদানি করা হয় মাত্র ৪ দিনের জন্য (৭ ফেব্রুয়ারি)। এরপর এ বন্দর দিয়ে আর আলু আমদানি করা হয়নি। আবার ৫৬ আমদানিকারক ১ হাজার ৩৮০ টন আলু আমদানির অনুমতি পেয়েছেন।

হিলি বন্দর দিয়ে আলু আমদানি, কমতে পারে দাম

আপডেট সময় : ০৫:৩৩:৪২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ মার্চ ২০২৪

নিজস্ব প্রতিনিধি:

ভরা মৌসুমেও ধীরে ধীরে বাড়ছে আলুর দাম। তাই এক মাস বন্ধ থাকার পর দিনাজপুরের হিলি বন্দর দিয়ে আবারও ভারত থেকে আলু আমদানি শুরু হয়েছে।

শনিবার (৯ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ভারতীয় আলু বোঝাই একটি ট্রাক হিলি স্থলবন্দরে প্রবেশ করে। এর আগে লোকসানের আশঙ্কায় ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহ থেকে আলু আমদানি বন্ধ করে দেন ব্যবসায়ীরা।

হিলি স্থলবন্দর দিয়ে প্রথম দিনে তিনটি ভারতীয় ট্রাকে ৬৯ টন আলু আমদানি হয়েছে বলে জানা গেছে।

হিলি স্থলবন্দরের আলু আমদানিকারক কবির হোসেন বাবু জানান, হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে ৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ভারত থেকে আলু আমদানি করা হয়। কিন্তু আলু আমদানিতে লোকসানের কারণে আমরা এক মাস আলু আমদানি বন্ধ করে দিয়েছি। বর্তমানে দেশি আলুর বাজারদর একটু বেশি থাকায় বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে আবারও আলু আমদানি শুরু করেছি। প্রথম দিনে আমরা ৬৯ টন আলু আমদানি করেছি।

হিলি উদ্ভিদ রোগ নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রের উপ-সহকারী ইউসুফ আলী জানান, দেশে আলুর বাজার নিয়ন্ত্রণে গত মাসের ১ ফেব্রুয়ারি ভারত থেকে আলু আমদানির অনুমতি দেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। হিলি বন্দরের ৫২ আমদানিকারক ৩৫ হাজার টন আলু আমদানির অনুমতি পেয়েছেন। এরপর ৩ ফেব্রুয়ারি ভারত থেকে আলু আমদানি শুরু করেন আমদানিকারকরা। আলু আমদানি করা হয় মাত্র ৪ দিনের জন্য (৭ ফেব্রুয়ারি)। এরপর এ বন্দর দিয়ে আর আলু আমদানি করা হয়নি। আবার ৫৬ আমদানিকারক ১ হাজার ৩৮০ টন আলু আমদানির অনুমতি পেয়েছেন।