ঢাকা ০৯:৩০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সাপাহারে রহমতের বৃষ্টি কামনায় ইস্তিসকার নামাজ আদায়

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৮:৪২:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪ ৪১ বার পঠিত
নওগাঁ  প্রতিনিধি:
বেশ কয়েক দিন ধরে তিব্র তাপদাহে পুড়ছে সারা দেশ । এতে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। তাই তীব্র গরম থেকে রক্ষা পেতে সাপাহার সরফতুল্লাহ ফাজিল মাদ্রাসা মাঠে বৃষ্টি কামনায় ইস্তিসকার নামাজের  আয়োজন করেছে সরফতুল্লাহ ফাজিল মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ।
২৫ এপ্রিল বৃহস্পতিবার সকাল ০৯টার দিকে সাপাহার সরফতুল্লাহ ফাজিল মাদ্রাসা মাঠে এই ইস্তিসকার নামাজ আদায় করেন মুসল্লিরা। ইস্তিসকার নামাজ শেষে মহান রাব্বুল আলামিনের দরবারে বিশেষ দোয়া প্রার্থনা করে অঝোরে চোখের জল ছেড়ে মোনাজাত ও ক্ষমা প্রার্থনা করেন ইমাম ও এলাকার মুসল্লিগণ। নামাজে ইমামতি ও দোয়া পরিচালনা করেন উক্ত মাদ্রাসার আরবি প্রভাষক মাওলানা ওমর ফারুক।
বিশেষ এই নামাজে অংশ নেয়া সাধারণ সুসুল্লিগণ জানান, কালবৈশাখীর এই মৌসুমে বৃষ্টির কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না, বরং  টানা তীব্র তাপপ্রবাহে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে । মাঠে রোদে পুড়ে কৃষকের ফসল নষ্ট হচ্ছে নষ্ট হচ্ছে বাগানে  আমের গুটি । রোদের তীব্রতায় শ্রমজীবী মানুষ বেশিক্ষণ কাজ করতে পারছেন না । এমন পরিস্থিতি থেকে মুক্তির আশায় উপজেলাবাসী বৃষ্টির জন্য সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনার আয়োজন করেছেন।
ইস্তিসকার নামাজ আদায় করতে আসা কৃষক আব্দুস সালাম  বলেন , অনেক দিন বৃষ্টি নেই, তীব্র রোদ ও প্রচন্ড গরম পড়ছে। অপর দিকে ঘনঘন লোডশেডিং সব মিলিয়ে চরম অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছি । তাই মহান আল্লাহর কাছে বৃষ্টির জন্য নামাজ ও দোয়া করতে এসেছি।
অন্যান্য মুসুল্লিরা বলেন, দীর্ঘ সময় বৃষ্টিপাত না হলে আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) সাহাবিদের নিয়ে খোলা ময়দানে ইস্তিসকার নামাজ আদায় করতেন। সে জন্য তারা মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে নিজেদের পাপের জন্য তওবা এবং ক্ষমা চেয়ে দুই রাকাত নামাজ আদায় করে বৃষ্টির জন্য প্রার্থনা করতে জমায়েত হয়েছেন। অনেক অঝোর কেঁদেছেন বলেছেন আল্লাহ যেন আমাদের ক্ষমা করে রহমতের বৃষ্টি দিয়ে আমাদের রক্ষা করেন।

সাপাহারে রহমতের বৃষ্টি কামনায় ইস্তিসকার নামাজ আদায়

আপডেট সময় : ০৮:৪২:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪
নওগাঁ  প্রতিনিধি:
বেশ কয়েক দিন ধরে তিব্র তাপদাহে পুড়ছে সারা দেশ । এতে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। তাই তীব্র গরম থেকে রক্ষা পেতে সাপাহার সরফতুল্লাহ ফাজিল মাদ্রাসা মাঠে বৃষ্টি কামনায় ইস্তিসকার নামাজের  আয়োজন করেছে সরফতুল্লাহ ফাজিল মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ।
২৫ এপ্রিল বৃহস্পতিবার সকাল ০৯টার দিকে সাপাহার সরফতুল্লাহ ফাজিল মাদ্রাসা মাঠে এই ইস্তিসকার নামাজ আদায় করেন মুসল্লিরা। ইস্তিসকার নামাজ শেষে মহান রাব্বুল আলামিনের দরবারে বিশেষ দোয়া প্রার্থনা করে অঝোরে চোখের জল ছেড়ে মোনাজাত ও ক্ষমা প্রার্থনা করেন ইমাম ও এলাকার মুসল্লিগণ। নামাজে ইমামতি ও দোয়া পরিচালনা করেন উক্ত মাদ্রাসার আরবি প্রভাষক মাওলানা ওমর ফারুক।
বিশেষ এই নামাজে অংশ নেয়া সাধারণ সুসুল্লিগণ জানান, কালবৈশাখীর এই মৌসুমে বৃষ্টির কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না, বরং  টানা তীব্র তাপপ্রবাহে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে । মাঠে রোদে পুড়ে কৃষকের ফসল নষ্ট হচ্ছে নষ্ট হচ্ছে বাগানে  আমের গুটি । রোদের তীব্রতায় শ্রমজীবী মানুষ বেশিক্ষণ কাজ করতে পারছেন না । এমন পরিস্থিতি থেকে মুক্তির আশায় উপজেলাবাসী বৃষ্টির জন্য সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনার আয়োজন করেছেন।
ইস্তিসকার নামাজ আদায় করতে আসা কৃষক আব্দুস সালাম  বলেন , অনেক দিন বৃষ্টি নেই, তীব্র রোদ ও প্রচন্ড গরম পড়ছে। অপর দিকে ঘনঘন লোডশেডিং সব মিলিয়ে চরম অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছি । তাই মহান আল্লাহর কাছে বৃষ্টির জন্য নামাজ ও দোয়া করতে এসেছি।
অন্যান্য মুসুল্লিরা বলেন, দীর্ঘ সময় বৃষ্টিপাত না হলে আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) সাহাবিদের নিয়ে খোলা ময়দানে ইস্তিসকার নামাজ আদায় করতেন। সে জন্য তারা মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে নিজেদের পাপের জন্য তওবা এবং ক্ষমা চেয়ে দুই রাকাত নামাজ আদায় করে বৃষ্টির জন্য প্রার্থনা করতে জমায়েত হয়েছেন। অনেক অঝোর কেঁদেছেন বলেছেন আল্লাহ যেন আমাদের ক্ষমা করে রহমতের বৃষ্টি দিয়ে আমাদের রক্ষা করেন।