ঢাকা ০৯:৩৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সড়ক দুর্ঘটনায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর মৃত্যু 

ইউসূফ জামিল, জাবি প্রতিনিধি :
  • আপডেট সময় : ০৮:২১:৫০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ জুন ২০২৪ ২০ বার পঠিত
রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলায় বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ২০২১-২২ সেশনের শিক্ষার্থী আজমুদা আক্তার রিমু (২২) নিহত হয়েছেন।
আজ শনিবার (৮ জুন) বেলা ২টার দিকে গঙ্গাচড়া থানার খলেয়া গঞ্জিপুর চেয়ারম্যান মোড় এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। এ ঘটনায় রিমুসহ আরও ২ জন নিহত এবং অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছেন।
রিমু বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতাত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের ৫১তম ব্যাচের শিক্ষার্থী। তার বাড়ি নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার পুটিমারী ইউনিয়নের ভেরভেরী গ্রামে। অন্য নিহতরা হলেন কিশোরগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা কার্যালয়ের আনসার সদস্য ও তারাগঞ্জ উপজেলার বসুনিয়া হাজীপাড়া গ্রামের মেহেরুল ইসলাম (৩৫) এবং কিশোরগঞ্জ সরকারি ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক ও গাড়াগ্রাম ইউনিয়নের গণেশের বাজার এলাকার দিবা রানী সরকার (৪০)। নিহতরা সবাই অটোরিকশার যাত্রী ছিলেন।
প্রত্যক্ষদর্শী ও রিমুর পরিবারের বরাত দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতাত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক হুসাইন মো. সায়েম বলেন, নীলফামারীর জলঢাকা থেকে রংপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা একটি বাস এবং রংপুরের পাগলাপীর থেকে কিশোরগঞ্জের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা একটি অটোরিকশা খলেয়া গঞ্জিপুরের চেয়ারম্যান মোড় এলাকায় আসলে দুই যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে অটোরিকশায় থাকা মেহেরুল ইসলামের ঘটনাস্থানেই মৃত্যু হয়। এ সময় বাসের হেলপারসহ কয়েকজন গুরুতর আহত হলে তাদেরকে রংপুর মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে পাঠায় স্থানীয় লোকজন। তবে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই দিবা রানী সরকার ও আজমুদা আক্তার রিমুর মৃত্যু হয়।
তিনি বলেন, ঘটনাটি খুবই মর্মান্তিক। বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের পক্ষ থেকে আমরা শোক প্রকাশ করছি এবং পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।

সড়ক দুর্ঘটনায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর মৃত্যু 

আপডেট সময় : ০৮:২১:৫০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ জুন ২০২৪
রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলায় বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ২০২১-২২ সেশনের শিক্ষার্থী আজমুদা আক্তার রিমু (২২) নিহত হয়েছেন।
আজ শনিবার (৮ জুন) বেলা ২টার দিকে গঙ্গাচড়া থানার খলেয়া গঞ্জিপুর চেয়ারম্যান মোড় এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। এ ঘটনায় রিমুসহ আরও ২ জন নিহত এবং অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছেন।
রিমু বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতাত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের ৫১তম ব্যাচের শিক্ষার্থী। তার বাড়ি নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার পুটিমারী ইউনিয়নের ভেরভেরী গ্রামে। অন্য নিহতরা হলেন কিশোরগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা কার্যালয়ের আনসার সদস্য ও তারাগঞ্জ উপজেলার বসুনিয়া হাজীপাড়া গ্রামের মেহেরুল ইসলাম (৩৫) এবং কিশোরগঞ্জ সরকারি ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক ও গাড়াগ্রাম ইউনিয়নের গণেশের বাজার এলাকার দিবা রানী সরকার (৪০)। নিহতরা সবাই অটোরিকশার যাত্রী ছিলেন।
প্রত্যক্ষদর্শী ও রিমুর পরিবারের বরাত দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতাত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক হুসাইন মো. সায়েম বলেন, নীলফামারীর জলঢাকা থেকে রংপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা একটি বাস এবং রংপুরের পাগলাপীর থেকে কিশোরগঞ্জের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা একটি অটোরিকশা খলেয়া গঞ্জিপুরের চেয়ারম্যান মোড় এলাকায় আসলে দুই যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে অটোরিকশায় থাকা মেহেরুল ইসলামের ঘটনাস্থানেই মৃত্যু হয়। এ সময় বাসের হেলপারসহ কয়েকজন গুরুতর আহত হলে তাদেরকে রংপুর মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে পাঠায় স্থানীয় লোকজন। তবে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই দিবা রানী সরকার ও আজমুদা আক্তার রিমুর মৃত্যু হয়।
তিনি বলেন, ঘটনাটি খুবই মর্মান্তিক। বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের পক্ষ থেকে আমরা শোক প্রকাশ করছি এবং পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।