ঢাকা ০১:৩৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মোল্লাহাটে দুই পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১, পুলিশ সদস্যসহ আহত ২০

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৭:২৮:৫৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৮ বার পঠিত

বাগেরহাট ব্যুরো চীফ :

বাগেরহাটের মোল্লাহাটে দুই বংশের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে পান্না মোল্লা (৪০) নামে একজন নিহত হয়েছেন। এসময় পুলিশ সদস্যসহ আহত হয়েছেন আরো অন্তত ২০ জন। উপজেলার উদয়পুর ইউনিয়নের মোল্লারকুল গ্রামে রোববার রাতে ঘন্টা ব্যাপী সংঘর্ষে এই হতাহতাতের ঘটনা ঘটে। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। ওই এলাকায় নতুন করে সংঘাত এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। নিহত পান্না মোল্লা (৪০) মোল্লারকুল গ্রামের তৈয়ব আলী মোল্লার ছেলে।

বাগেরহাটের মোল্লাহাট উপজেলার উদয়পুর ইউনিয়নের মোল্লারকুল গ্রামের খাঁকি ও কাজী বংশের আধিপত্য নিয়ে বিরোধ দীর্ঘদিনের। এই বিরোধের জেরে রোববার বিকেলে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ ও স্থানীয়রা।

বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাসেলুর রহমান জানান, মোল্লাহাট উপজেলার মোল্লারকুল গ্রামের আধিপত্য নিয়ে স্থানীয় খাঁকি ও কাজী বংশের বিরোধ বেশ পুরানো। সেই বিরোধের জেরে রোববার বিকেলে মোল্লারকুল হাটে কাজী বংশের দুই সমর্থকের সাথে খাঁকি বংশের সমর্থকদের কথাকাটাকাটি হয়। পরে তারা আলাদা আলাদাভাবে ঢাল সড়কি, ইট পাটকেল ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে সুজজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। দেশীয় অস্ত্র নিক্ষেপের মধ্যে এই দুটি পক্ষই বেশ কয়েক রাউন্ড গুলিও ছোড়ে। এই সংঘর্ষের খবর পুলিশের কাছে আসলে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে সংঘর্ষ থামানোর চেষ্টা করে। উভয়পক্ষের সংঘর্ষে কাজী বংশের সমর্থক পান্না মোল্লা নামে একজন নিহত হয়েছেন। সংঘর্ষে পুলিশের ছয়জন সদস্যসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করেছে। আহতদের স্থানীয় মোল্লাহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। পান্না মোল্লা গুলিতে না দেশিয় অস্ত্রের আঘাতে মারা গেছেন তা এখনই বলা যাচ্ছে না। পরিস্থিতি এখন পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ওই এলাকায় নতুন করে সংঘাত এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এই ঘটনায় এখনো জড়িত কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি।

মোল্লাহাটে দুই পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১, পুলিশ সদস্যসহ আহত ২০

আপডেট সময় : ০৭:২৮:৫৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বাগেরহাট ব্যুরো চীফ :

বাগেরহাটের মোল্লাহাটে দুই বংশের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে পান্না মোল্লা (৪০) নামে একজন নিহত হয়েছেন। এসময় পুলিশ সদস্যসহ আহত হয়েছেন আরো অন্তত ২০ জন। উপজেলার উদয়পুর ইউনিয়নের মোল্লারকুল গ্রামে রোববার রাতে ঘন্টা ব্যাপী সংঘর্ষে এই হতাহতাতের ঘটনা ঘটে। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। ওই এলাকায় নতুন করে সংঘাত এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। নিহত পান্না মোল্লা (৪০) মোল্লারকুল গ্রামের তৈয়ব আলী মোল্লার ছেলে।

বাগেরহাটের মোল্লাহাট উপজেলার উদয়পুর ইউনিয়নের মোল্লারকুল গ্রামের খাঁকি ও কাজী বংশের আধিপত্য নিয়ে বিরোধ দীর্ঘদিনের। এই বিরোধের জেরে রোববার বিকেলে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ ও স্থানীয়রা।

বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাসেলুর রহমান জানান, মোল্লাহাট উপজেলার মোল্লারকুল গ্রামের আধিপত্য নিয়ে স্থানীয় খাঁকি ও কাজী বংশের বিরোধ বেশ পুরানো। সেই বিরোধের জেরে রোববার বিকেলে মোল্লারকুল হাটে কাজী বংশের দুই সমর্থকের সাথে খাঁকি বংশের সমর্থকদের কথাকাটাকাটি হয়। পরে তারা আলাদা আলাদাভাবে ঢাল সড়কি, ইট পাটকেল ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে সুজজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। দেশীয় অস্ত্র নিক্ষেপের মধ্যে এই দুটি পক্ষই বেশ কয়েক রাউন্ড গুলিও ছোড়ে। এই সংঘর্ষের খবর পুলিশের কাছে আসলে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে সংঘর্ষ থামানোর চেষ্টা করে। উভয়পক্ষের সংঘর্ষে কাজী বংশের সমর্থক পান্না মোল্লা নামে একজন নিহত হয়েছেন। সংঘর্ষে পুলিশের ছয়জন সদস্যসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করেছে। আহতদের স্থানীয় মোল্লাহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। পান্না মোল্লা গুলিতে না দেশিয় অস্ত্রের আঘাতে মারা গেছেন তা এখনই বলা যাচ্ছে না। পরিস্থিতি এখন পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ওই এলাকায় নতুন করে সংঘাত এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এই ঘটনায় এখনো জড়িত কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি।