ঢাকা ১০:৪৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে প্রস্তুত জাতি

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৮:৫৮:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ২২ বার পঠিত

অনলাইন ডেস্ক।।

মঙ্গলবার একুশে ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং বিভিন্ন স্থানে আলোচনা সভাসহ নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে জাতি শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাবে।

এদিন রাত ১২টা ১ মিনিটে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে একুশের কর্মসূচি শুরু হবে। এছাড়া  কালো ব্যাজ ধারণ, প্রভাতফেরি সহকারে আজিমপুর কবরস্থানে শহীদদের কবরে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও শ্রদ্ধা জানানো হবে।

৭১ বছর পেরিয়ে গেলেও ভাষা শহীদদের পরিবারের সদস্যরা এখন অনেকটাই অবহেলিত। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আগে অন্ততঃ প্রতি বছর শুধু ২১ ফেব্রুয়ারি এলেই ভাষা শহীদদের খোঁজ-খবর নেওয়া হলেও এখন আর তেমনটা খোঁজ নেওয়া হয় না। এমনকি ভাষা শহীদ ও সৈনিকদের স্মরণে যে একুশের বই মেলা এবং রাষ্ট্রীয়সহ বিভিন্ন অনুষ্ঠাণের আয়োজন করা হয়, বর্তমানে সেখানেও তাদের কোন পরিবারের কাউকে আমন্ত্রণ জানানো হয় না।

তবে দিবসটি উপলক্ষে শুধু সাংবাদিকরা খোঁজ নেন তাদের পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য। বরকত পরিবারের কোন সদস্য ভারতে ভ্রমণে বা চিকিৎসার জন্য গেলে সেখানে যেভাবে সম্মান জানানো হয়, কিন্তু বাংলাদেশে ততটা হয়না। ২১ ফেব্রæয়ারি উপলক্ষ্যে ভাষা শহীদ বরকতের নামে ভারতে বই মেলার আয়োজন করা হলেও দিবসটি উপলক্ষ্যে ভাষা শহীদদের নামে তেমনটা হয় না। এমনটিই ক্ষোভ জানিয়ে বলেছেন বরকত পরিবারসহ ভাষা শহীদ অন্যান্য পরিবারের সদস্যরা।

ট্যাগস :

ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে প্রস্তুত জাতি

আপডেট সময় : ০৮:৫৮:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

অনলাইন ডেস্ক।।

মঙ্গলবার একুশে ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং বিভিন্ন স্থানে আলোচনা সভাসহ নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে জাতি শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাবে।

এদিন রাত ১২টা ১ মিনিটে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে একুশের কর্মসূচি শুরু হবে। এছাড়া  কালো ব্যাজ ধারণ, প্রভাতফেরি সহকারে আজিমপুর কবরস্থানে শহীদদের কবরে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও শ্রদ্ধা জানানো হবে।

৭১ বছর পেরিয়ে গেলেও ভাষা শহীদদের পরিবারের সদস্যরা এখন অনেকটাই অবহেলিত। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আগে অন্ততঃ প্রতি বছর শুধু ২১ ফেব্রুয়ারি এলেই ভাষা শহীদদের খোঁজ-খবর নেওয়া হলেও এখন আর তেমনটা খোঁজ নেওয়া হয় না। এমনকি ভাষা শহীদ ও সৈনিকদের স্মরণে যে একুশের বই মেলা এবং রাষ্ট্রীয়সহ বিভিন্ন অনুষ্ঠাণের আয়োজন করা হয়, বর্তমানে সেখানেও তাদের কোন পরিবারের কাউকে আমন্ত্রণ জানানো হয় না।

তবে দিবসটি উপলক্ষে শুধু সাংবাদিকরা খোঁজ নেন তাদের পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য। বরকত পরিবারের কোন সদস্য ভারতে ভ্রমণে বা চিকিৎসার জন্য গেলে সেখানে যেভাবে সম্মান জানানো হয়, কিন্তু বাংলাদেশে ততটা হয়না। ২১ ফেব্রæয়ারি উপলক্ষ্যে ভাষা শহীদ বরকতের নামে ভারতে বই মেলার আয়োজন করা হলেও দিবসটি উপলক্ষ্যে ভাষা শহীদদের নামে তেমনটা হয় না। এমনটিই ক্ষোভ জানিয়ে বলেছেন বরকত পরিবারসহ ভাষা শহীদ অন্যান্য পরিবারের সদস্যরা।