ঢাকা ০৪:৫৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিরামপুরে সরকারি রাস্তার বিলুপ্তি প্রজাতির তাল গাছ কর্তন

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৬:০১:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ এপ্রিল ২০২৩ ৮ বার পঠিত

চৌধুরী নুপুর নাহার তাজ , দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি:
দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার জোতবানী ইউনিয়নের শিবপুর হতে ভাইগড সরকারি কাঁচা রাস্তার উপর দাঁড়িয়ে থাকা সারি সারি তালগাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে।
রোববার জোতবানী ইউনিয়নের শিবপুর হতে ভাইগড় পর্যন্ত কাঁচা রাস্তার উপর থাকা তালগাছ গুলো কর্তন করেছেন শিবপুর গ্রামের হাফিজুর রহমানের জামাই মোঃ মোখলেসুর রহমান মুরাদ। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক জানান, তাল গাছগুলির আনুমানিক বয়স প্রায় ৫০ বছর হবে। তাল গাছ কাটার সংবাদ পেয়ে গ্রাম পুলিশ পাঠিয়ে দিয়ে বন্ধ করেছি। বাংলাদেশ সরকার দুর্যোগ মোকাবেলায় প্রতিটি রাস্তাঘাটে তাল গাছ রোপন কর্মসূচি পালন করেছেন। কিন্তু বিরামপুরে বহুদিনের তাল গাছ গুলো কর্তন করে পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট করছেন বলে তিনি অভিয়োগ করেন। তালগাছ কর্তনকারী মোকলেছুর রহমান মুরাদ বলেন রাস্তার পাশের গাছ গুলো আমার মা ও শাশুড়ির জায়গার উপরে আছে। তাই ইউএনও বরাবর আবেদন করেছি এরপর মোট ১১ টি গাছ কেটেছি।
এ বিষয়ে ইউএনও পরিমল কুমার সরকার বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের রাস্তার পাশে তাল গাছ গুলো মোকলেছুর রহমান নামে এক ব্যক্তির বলে দাবি করেন। তখন সার্ভেয়ার ও ইউপি ভুমি কর্মকর্তার মাধ্যমে সঠিক দিক নির্দেশনা দেওয়া হয়।
তিনি আরও বলেন রাস্তার পাশে যদি কারো জায়গা থাকে তবে সেই জায়গার উপর কোন গাছ বা অন্য কিছু থাকলে তা দাবি করতেই পারে। জানা যায় তাল গাছগুলি সরকারি রাস্তার উপরে আছে। সেই রাস্তাটির ভাইগড় গ্রামের দিক হইতে শিবপুর পর্যন্ত পাকা কার্পেটিং কাজ হয়ে আসছে। উপজেলা চেয়ারম্যান খায়রুল আলম রাজু মুঠো ফোনে বলেন এ ধরনের বেআইনী কাজ যারা করেছেন এবং সহযোগিতা করেছেন তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিরামপুরে সরকারি রাস্তার বিলুপ্তি প্রজাতির তাল গাছ কর্তন

আপডেট সময় : ০৬:০১:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ এপ্রিল ২০২৩

চৌধুরী নুপুর নাহার তাজ , দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি:
দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার জোতবানী ইউনিয়নের শিবপুর হতে ভাইগড সরকারি কাঁচা রাস্তার উপর দাঁড়িয়ে থাকা সারি সারি তালগাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে।
রোববার জোতবানী ইউনিয়নের শিবপুর হতে ভাইগড় পর্যন্ত কাঁচা রাস্তার উপর থাকা তালগাছ গুলো কর্তন করেছেন শিবপুর গ্রামের হাফিজুর রহমানের জামাই মোঃ মোখলেসুর রহমান মুরাদ। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক জানান, তাল গাছগুলির আনুমানিক বয়স প্রায় ৫০ বছর হবে। তাল গাছ কাটার সংবাদ পেয়ে গ্রাম পুলিশ পাঠিয়ে দিয়ে বন্ধ করেছি। বাংলাদেশ সরকার দুর্যোগ মোকাবেলায় প্রতিটি রাস্তাঘাটে তাল গাছ রোপন কর্মসূচি পালন করেছেন। কিন্তু বিরামপুরে বহুদিনের তাল গাছ গুলো কর্তন করে পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট করছেন বলে তিনি অভিয়োগ করেন। তালগাছ কর্তনকারী মোকলেছুর রহমান মুরাদ বলেন রাস্তার পাশের গাছ গুলো আমার মা ও শাশুড়ির জায়গার উপরে আছে। তাই ইউএনও বরাবর আবেদন করেছি এরপর মোট ১১ টি গাছ কেটেছি।
এ বিষয়ে ইউএনও পরিমল কুমার সরকার বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের রাস্তার পাশে তাল গাছ গুলো মোকলেছুর রহমান নামে এক ব্যক্তির বলে দাবি করেন। তখন সার্ভেয়ার ও ইউপি ভুমি কর্মকর্তার মাধ্যমে সঠিক দিক নির্দেশনা দেওয়া হয়।
তিনি আরও বলেন রাস্তার পাশে যদি কারো জায়গা থাকে তবে সেই জায়গার উপর কোন গাছ বা অন্য কিছু থাকলে তা দাবি করতেই পারে। জানা যায় তাল গাছগুলি সরকারি রাস্তার উপরে আছে। সেই রাস্তাটির ভাইগড় গ্রামের দিক হইতে শিবপুর পর্যন্ত পাকা কার্পেটিং কাজ হয়ে আসছে। উপজেলা চেয়ারম্যান খায়রুল আলম রাজু মুঠো ফোনে বলেন এ ধরনের বেআইনী কাজ যারা করেছেন এবং সহযোগিতা করেছেন তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।