ঢাকা ০৯:২৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাকের ভাই আসাদুজ্জামান নূরের গল্প

বিনোদন ডেস্ক:
  • আপডেট সময় : ০৮:১৫:৫১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪ ২৫ বার পঠিত

মঞ্চ, বেতার, টেলিভিশন, চলচ্চিত্র, ওয়েব ফিল্ম-অভিনয়ের প্রতিটি মাধ্যমেই সফল এক নাম আসাদুজ্জামান নূর। অভিনয় দিয়ে তিনি জয় করেছেন কোটি মানুষের ভালোবাসা।

নন্দিত লেখক হুমায়ুন আহমেদের ‘কোথাও কেউ নেই’ ধারাবাহিক নাটকে বাকের ভাই চরিত্রে অভিনয় করে তিনি নাটকের জগতে ইতিহাস সৃষ্টি করেন। আরও অনেক আলোচিত চরিত্রে অভিনয় করলেও বাকের ভাইয়ের জনপ্রিয়তা ছাড়িয়ে যেতে পারেননি আসাদুজ্জামান নূর। ১৯৯০ সালে প্রচারিত এই নাটকটি দেখার পর সেই সময়ের মানুষতো বটেই, নতুন প্রজন্মও আসাদুজ্জামান নূরকে বাকের ভাই নামে ডাকেন।

‘অয়োময়’ নাটকে মীর্জা চরিত্রে অভিনয় করেও তুমুল সাড়া পান আসাদুজ্জামান নূর। এই নাটকে তার কথা বলার স্টাইল, হাঁটাচলা থেকে শুরু করে সবকিছুই দর্শকদের আকৃষ্ট করে। আজও তাকে মীর্জা হিসেবে চেনেন অনেকে।

বেকার যুবক, মাস্তান, চোর, খুনি, পরিবারের বড় ছেলে-এমন কোনো চরিত্র নেই যা তিনি করেননি। নান্দাইলের ইউনুস চরিত্রটিও তাকে নতুন মাত্রা দিয়েছে। ‘মাটির পিঞ্জির’ নাটকে ভাড়াটে খুনি নান্দাইলের ইউনুস চরিত্রে অভিনয় করে তিনি নতুন চমক দেখান।

অভিনয়ের পাশাপাশি আবৃত্তি অঙ্গনেও তার অবদান অনস্বীকার্য। মঞ্চে তার পথচলা দীর্ঘ দিনের। ‘নুরুল দিনের সারাজীবন’, ‘দেওয়ান গাজীর কিসসা’, ‘গ্যালিলিও’ নাটকে তার অভিনয় মঞ্চে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়ের হয়ে সুদীর্ঘকাল তিনি ঢাকার মঞ্চে অভিনয় করেছেন।

আসাদুজ্জামান নূর একজন মুক্তিযোদ্ধা। সফল অভিনেতার পাশাপাশি তিনি সফল রাজনীতিবিদও। অনন্য সাধারণ কাজের স্বীকৃতি হিসেবে তিনি পেয়েছেন স্বাধীনতা পুরস্কারসহ অনেক পুরস্কার ও সম্মাননা। ‘বহুব্রীহি’, ‘আজ রবিবার’ ও ‘এইসব দিনরাত্রি’ ধারাবাহিকে অভিনয়ের এই জাদুকরের অভিনয় আজও মানুষ মনে রেখেছেন।

বাকের ভাই আসাদুজ্জামান নূরের গল্প

আপডেট সময় : ০৮:১৫:৫১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪

মঞ্চ, বেতার, টেলিভিশন, চলচ্চিত্র, ওয়েব ফিল্ম-অভিনয়ের প্রতিটি মাধ্যমেই সফল এক নাম আসাদুজ্জামান নূর। অভিনয় দিয়ে তিনি জয় করেছেন কোটি মানুষের ভালোবাসা।

নন্দিত লেখক হুমায়ুন আহমেদের ‘কোথাও কেউ নেই’ ধারাবাহিক নাটকে বাকের ভাই চরিত্রে অভিনয় করে তিনি নাটকের জগতে ইতিহাস সৃষ্টি করেন। আরও অনেক আলোচিত চরিত্রে অভিনয় করলেও বাকের ভাইয়ের জনপ্রিয়তা ছাড়িয়ে যেতে পারেননি আসাদুজ্জামান নূর। ১৯৯০ সালে প্রচারিত এই নাটকটি দেখার পর সেই সময়ের মানুষতো বটেই, নতুন প্রজন্মও আসাদুজ্জামান নূরকে বাকের ভাই নামে ডাকেন।

‘অয়োময়’ নাটকে মীর্জা চরিত্রে অভিনয় করেও তুমুল সাড়া পান আসাদুজ্জামান নূর। এই নাটকে তার কথা বলার স্টাইল, হাঁটাচলা থেকে শুরু করে সবকিছুই দর্শকদের আকৃষ্ট করে। আজও তাকে মীর্জা হিসেবে চেনেন অনেকে।

বেকার যুবক, মাস্তান, চোর, খুনি, পরিবারের বড় ছেলে-এমন কোনো চরিত্র নেই যা তিনি করেননি। নান্দাইলের ইউনুস চরিত্রটিও তাকে নতুন মাত্রা দিয়েছে। ‘মাটির পিঞ্জির’ নাটকে ভাড়াটে খুনি নান্দাইলের ইউনুস চরিত্রে অভিনয় করে তিনি নতুন চমক দেখান।

অভিনয়ের পাশাপাশি আবৃত্তি অঙ্গনেও তার অবদান অনস্বীকার্য। মঞ্চে তার পথচলা দীর্ঘ দিনের। ‘নুরুল দিনের সারাজীবন’, ‘দেওয়ান গাজীর কিসসা’, ‘গ্যালিলিও’ নাটকে তার অভিনয় মঞ্চে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়ের হয়ে সুদীর্ঘকাল তিনি ঢাকার মঞ্চে অভিনয় করেছেন।

আসাদুজ্জামান নূর একজন মুক্তিযোদ্ধা। সফল অভিনেতার পাশাপাশি তিনি সফল রাজনীতিবিদও। অনন্য সাধারণ কাজের স্বীকৃতি হিসেবে তিনি পেয়েছেন স্বাধীনতা পুরস্কারসহ অনেক পুরস্কার ও সম্মাননা। ‘বহুব্রীহি’, ‘আজ রবিবার’ ও ‘এইসব দিনরাত্রি’ ধারাবাহিকে অভিনয়ের এই জাদুকরের অভিনয় আজও মানুষ মনে রেখেছেন।