ঢাকা ০৯:৫৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাউবিতে বঙ্গবন্ধুর রাষ্ট্রচিন্তা-বাংলাদেশ রাষ্ট্র বিনির্মানের সূচনা শীর্ষক সেমিনার

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৮:১৯:৩০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪ ১৮ বার পঠিত

গাজীপুর প্রতিনিধি :

অগ্নিঝরা মার্চ উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় (বাউবি) আয়োজিত মাসব্যাপী অনুষ্ঠানমালার অংশ হিসেবে আজ বাউবি’র গাজীপুরস্থ বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা সম্মেলন ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে “বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রাষ্ট্রচিন্তা এবং বাংলাদেশ রাষ্ট্র বিনির্মাণের সূচনা’’ শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউজিসি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ফেলো অধ্যাপক ড. মমতাজউদ্দিন পাটোয়ারী। তিনি ভারতবর্ষের দুইশো বছরের ইতিহাস এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রাজনীতির প্রধান লক্ষ্য, সংগ্রাম, দর্শন, চিন্তা ও স্বাধীন রাষ্ট্র অর্জনের নিরবিচ্ছন্ন সংগ্রামে দীর্ঘ ইতিহাস তুলে ধরেন তার প্রবন্ধে। পলাশির প্রান্তর, বিট্রিশদের শোষণ বঞ্চনা, ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি, ৪৭ এর দাঙ্গা, ৫২’র ভাষা আন্দোলন থেকে ৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধসহ সকল প্রেক্ষাপটের সুক্ষাতিসুক্ষ বিশ্লেষণ এবং একটি মানচিত্রের দাবিতে বঙ্গবন্ধুর সুদূর প্রসারি নেতৃত্ব, অসাম্প্রদায়িক চেতনা, পরিকল্পনা ও ত্যাগের গৌরবজ্জ্বল দিকগুলো তুলে ধরেন ড. পাটোয়ারী।

তিনি উল্লেখ করেন, মুসলিম লীগ, কংগ্রেস নেতৃবৃন্দের দ্বন্ধ, উচ্চবিলাসীতা ও অদূরদর্শিতার কারণে ভারত বিভক্তির কবলে পড়ে। বাংলাও এই বিভক্তির হাত থেকে রেহাই পায়নি। বাংলার উপর অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক বৈষম্যকে তিনি চরম নিপীড়ন হিসেবে ব্যাখ্যা করেন। বাংলাকে স্বায়ত্বশাসনের দাবি নিয়ে আওয়ামী লীগের এগিয়ে যাওয়া এবং জনগণের মধ্যে স্বায়ত্বশাসনের ধারণা প্রচারের জন্য বঙ্গবন্ধুর ত্যাগ তিতিক্ষা, জেল জুলুমের চিত্র উপস্থাপন করেন ড. পাটোয়ারী। বঙ্গবন্ধুর অসীম সাহস, দৃঢ়তা, নেতৃত্বের গুণাবলী, মানুষের প্রতি ভালবাসা, আত্মত্যাগের মহৎ মানসিকতা ও বহুমাত্রিক পরিকল্পনা পাকিস্তানের মতো সামরিক স্বৈরতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যবস্থা থেকে পূর্ব বাংলাকে মুক্তির পথ দেখিয়েছে। সেমিনারে প্রধান অতিথি বাংলাদেশ মঞ্জুরী কমিশনের সদস্য অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের বলেন, আজকের এই আয়োজনের মধ্যে দিয়ে বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক জীবন ও ইতিহাস আরো প্রসারিত ও সমৃদ্ধ হল।
ষড়যন্ত্রকারীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ইতিহাসকে বিকৃত নয় বরং ইতিহাসকে ইতিহাসের জায়গায় রেখে রাজনীতি করা উচিত।

সেমিনারের সভাপতি উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতার বলেন, প্রকৃত ইতিহাস কখনোই পাল্টানো যায় না। ড. পাটোয়ারীর কর্ম প্রয়াস আমাদের প্রজ্জ্বলিত করেছে। আমি মনে করি তার এই গবেষণা গ্রন্থ ইতিহাস ও রাষ্ট্রবিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের অন্যতম সহায়ক হবে। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বাউবির উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. নাসিম বানু, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. মাহবুবা নাসরীন, ট্রেজারার অধ্যাপক মোস্তফা আজাদ কামাল, রেজিস্ট্রার ড. মহা: শফিকুল আলম, ইউজিসির রিসার্চ সাপোর্ট এন্ড পাবলিকেশসন বিভাগের পরিচালক ড. মো. ফখরুল ইসলামসহ বাউবি’র বিভিন্ন স্কুলের ডিন, পরিচালক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

বাউবিতে বঙ্গবন্ধুর রাষ্ট্রচিন্তা-বাংলাদেশ রাষ্ট্র বিনির্মানের সূচনা শীর্ষক সেমিনার

আপডেট সময় : ০৮:১৯:৩০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪

গাজীপুর প্রতিনিধি :

অগ্নিঝরা মার্চ উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় (বাউবি) আয়োজিত মাসব্যাপী অনুষ্ঠানমালার অংশ হিসেবে আজ বাউবি’র গাজীপুরস্থ বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা সম্মেলন ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে “বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রাষ্ট্রচিন্তা এবং বাংলাদেশ রাষ্ট্র বিনির্মাণের সূচনা’’ শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউজিসি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ফেলো অধ্যাপক ড. মমতাজউদ্দিন পাটোয়ারী। তিনি ভারতবর্ষের দুইশো বছরের ইতিহাস এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রাজনীতির প্রধান লক্ষ্য, সংগ্রাম, দর্শন, চিন্তা ও স্বাধীন রাষ্ট্র অর্জনের নিরবিচ্ছন্ন সংগ্রামে দীর্ঘ ইতিহাস তুলে ধরেন তার প্রবন্ধে। পলাশির প্রান্তর, বিট্রিশদের শোষণ বঞ্চনা, ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি, ৪৭ এর দাঙ্গা, ৫২’র ভাষা আন্দোলন থেকে ৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধসহ সকল প্রেক্ষাপটের সুক্ষাতিসুক্ষ বিশ্লেষণ এবং একটি মানচিত্রের দাবিতে বঙ্গবন্ধুর সুদূর প্রসারি নেতৃত্ব, অসাম্প্রদায়িক চেতনা, পরিকল্পনা ও ত্যাগের গৌরবজ্জ্বল দিকগুলো তুলে ধরেন ড. পাটোয়ারী।

তিনি উল্লেখ করেন, মুসলিম লীগ, কংগ্রেস নেতৃবৃন্দের দ্বন্ধ, উচ্চবিলাসীতা ও অদূরদর্শিতার কারণে ভারত বিভক্তির কবলে পড়ে। বাংলাও এই বিভক্তির হাত থেকে রেহাই পায়নি। বাংলার উপর অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক বৈষম্যকে তিনি চরম নিপীড়ন হিসেবে ব্যাখ্যা করেন। বাংলাকে স্বায়ত্বশাসনের দাবি নিয়ে আওয়ামী লীগের এগিয়ে যাওয়া এবং জনগণের মধ্যে স্বায়ত্বশাসনের ধারণা প্রচারের জন্য বঙ্গবন্ধুর ত্যাগ তিতিক্ষা, জেল জুলুমের চিত্র উপস্থাপন করেন ড. পাটোয়ারী। বঙ্গবন্ধুর অসীম সাহস, দৃঢ়তা, নেতৃত্বের গুণাবলী, মানুষের প্রতি ভালবাসা, আত্মত্যাগের মহৎ মানসিকতা ও বহুমাত্রিক পরিকল্পনা পাকিস্তানের মতো সামরিক স্বৈরতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যবস্থা থেকে পূর্ব বাংলাকে মুক্তির পথ দেখিয়েছে। সেমিনারে প্রধান অতিথি বাংলাদেশ মঞ্জুরী কমিশনের সদস্য অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের বলেন, আজকের এই আয়োজনের মধ্যে দিয়ে বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক জীবন ও ইতিহাস আরো প্রসারিত ও সমৃদ্ধ হল।
ষড়যন্ত্রকারীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ইতিহাসকে বিকৃত নয় বরং ইতিহাসকে ইতিহাসের জায়গায় রেখে রাজনীতি করা উচিত।

সেমিনারের সভাপতি উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতার বলেন, প্রকৃত ইতিহাস কখনোই পাল্টানো যায় না। ড. পাটোয়ারীর কর্ম প্রয়াস আমাদের প্রজ্জ্বলিত করেছে। আমি মনে করি তার এই গবেষণা গ্রন্থ ইতিহাস ও রাষ্ট্রবিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের অন্যতম সহায়ক হবে। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বাউবির উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. নাসিম বানু, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. মাহবুবা নাসরীন, ট্রেজারার অধ্যাপক মোস্তফা আজাদ কামাল, রেজিস্ট্রার ড. মহা: শফিকুল আলম, ইউজিসির রিসার্চ সাপোর্ট এন্ড পাবলিকেশসন বিভাগের পরিচালক ড. মো. ফখরুল ইসলামসহ বাউবি’র বিভিন্ন স্কুলের ডিন, পরিচালক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।