ঢাকা ০৭:০৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo নরসিংদীতে সংবর্ধনা নেওয়ার সময় ভূয়া ম্যাজিস্ট্রেট আটক, তিন মাসের সাজা Logo দেশের বাজারে বয়া এর নতুন অল ইন ওয়ান ওয়ারলেস মাইক্রোফোন Logo সাড়ে চারশ কোটির হীরার নেকলেসে নজর কাড়লেন প্রিয়াঙ্কা Logo  পৃথিবীতে কোন দেশের মেয়েরা সবচেয়ে বেশি সুন্দরী Logo বাংলাদেশ ব্যাংকে সাংবাদিক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেশের গণতন্ত্র-মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী Logo ঈদের সময় ১১ দিন বাল্কহেড চলাচল বন্ধ Logo বিএসআরএফ বার্তা’র মোড়ক উম্মোচন করলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী Logo টানা ছয় ম্যাচ জিতে প্লে অফ নিশ্চিত করলেও শেষমেশ বিদায় নিলো বেঙ্গালুরু Logo গাজায় মসজিদে ইসরায়েলি হামলা, ১০ শিশুসহ নিহত ১৬ Logo এমপি আনোয়ারুল হত্যাকাণ্ড: ঢাকায় আসছে ভারতীয় পুলিশের স্পেশাল টিম

পোল্ট্রি খামারীকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় অস্ত্রসহ দুইজন গ্রেপ্তার

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৪:১৭:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৬ এপ্রিল ২০২৩ ৬ বার পঠিত

তারেক পাঠান, নরসিংদী প্রতিনিধি:
নরসিংদীর রায়পুরার নিলক্ষায় বাড়িতে ঢুকে জুলহাস মিয়া (২৮) নামে এক পোল্ট্রি খামারীকে গুলি করে হত্যা ও ৪ জন আহতের ঘটনায় জড়িত দুই জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এসময় তাদের দখল থেকে ১টি দেশিয় তৈরি ১ নলা বন্দুক ও ২ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ ভোরে রায়পুরা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করে জেলা পুলিশের একাধিক দল। আজ দুপুরে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অনির্বাণ চৌধুরী।
গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- রায়পুরা থানার বাঁশগাড়ী ইউনিয়নের বটতলীকান্দি এলাকার বাবুল মিয়ার ছেলে সুমন মিয়া (২৩) ও নিলক্ষা ইউনিয়নের দড়িগাঁও এলাকার মঙ্গল ব্যাপারীর ছেলে রাকিব (২২)।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানান, গত ২২ এপ্রিল শনিবার ঈদের দিন বিকালে নিলক্ষার বীরগাঁও এলাকায় ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতংক তৈরি করে উল্লাস করছিল একদল সন্ত্রাসী। এসময় পোল্ট্রি খামারী জুলহাস মিয়াসহ স্থানীয়রা তাদের বাঁধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ত্রাসীরা অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে পোল্ট্রি খামারী জুলহাস মিয়ার বাড়িতে ঢুকে এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়ে। এসময় জুলহাস মিয়াসহ ৫ জন গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়। পরে তাদের নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নেয়ার পর জুলহাস মিয়াকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। অন্যান্য আহত আরও ৪ জনকে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়।
এই ঘটনায় নিহত জুলহাসের মা হালিমা বেগম বাদী হয়ে সোমবার রাতে ১৩ জনের নামউল্লেখসহ অজ্ঞাত ৫০ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন। পরে আসামীদের গ্রেপ্তারে অভিযানে নামে জেলা গোয়েন্দা শাখাসহ জেলা পুলিশের একাধিক টিম। আজ ভোরে নবীনগরের থোল্লাকান্দি এলাকা থেকে রাকিবকে ও রায়পুরার হরিপুর কাওয়াবাড়ি এলাকা থেকে সুমন মিয়াকে গ্রেপ্তার ও ১টি দেশিয় তৈরি ১ নলা বন্দুক ও ২ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।
অন্যান্য আসামীদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে এর আগেও হত্যাসহ ২টি মামলা রয়েছে বলে জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অনির্বাণ চৌধুরী।

 

পোল্ট্রি খামারীকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় অস্ত্রসহ দুইজন গ্রেপ্তার

আপডেট সময় : ০৪:১৭:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৬ এপ্রিল ২০২৩

তারেক পাঠান, নরসিংদী প্রতিনিধি:
নরসিংদীর রায়পুরার নিলক্ষায় বাড়িতে ঢুকে জুলহাস মিয়া (২৮) নামে এক পোল্ট্রি খামারীকে গুলি করে হত্যা ও ৪ জন আহতের ঘটনায় জড়িত দুই জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এসময় তাদের দখল থেকে ১টি দেশিয় তৈরি ১ নলা বন্দুক ও ২ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ ভোরে রায়পুরা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করে জেলা পুলিশের একাধিক দল। আজ দুপুরে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অনির্বাণ চৌধুরী।
গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- রায়পুরা থানার বাঁশগাড়ী ইউনিয়নের বটতলীকান্দি এলাকার বাবুল মিয়ার ছেলে সুমন মিয়া (২৩) ও নিলক্ষা ইউনিয়নের দড়িগাঁও এলাকার মঙ্গল ব্যাপারীর ছেলে রাকিব (২২)।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানান, গত ২২ এপ্রিল শনিবার ঈদের দিন বিকালে নিলক্ষার বীরগাঁও এলাকায় ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতংক তৈরি করে উল্লাস করছিল একদল সন্ত্রাসী। এসময় পোল্ট্রি খামারী জুলহাস মিয়াসহ স্থানীয়রা তাদের বাঁধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ত্রাসীরা অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে পোল্ট্রি খামারী জুলহাস মিয়ার বাড়িতে ঢুকে এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়ে। এসময় জুলহাস মিয়াসহ ৫ জন গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়। পরে তাদের নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নেয়ার পর জুলহাস মিয়াকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। অন্যান্য আহত আরও ৪ জনকে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়।
এই ঘটনায় নিহত জুলহাসের মা হালিমা বেগম বাদী হয়ে সোমবার রাতে ১৩ জনের নামউল্লেখসহ অজ্ঞাত ৫০ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন। পরে আসামীদের গ্রেপ্তারে অভিযানে নামে জেলা গোয়েন্দা শাখাসহ জেলা পুলিশের একাধিক টিম। আজ ভোরে নবীনগরের থোল্লাকান্দি এলাকা থেকে রাকিবকে ও রায়পুরার হরিপুর কাওয়াবাড়ি এলাকা থেকে সুমন মিয়াকে গ্রেপ্তার ও ১টি দেশিয় তৈরি ১ নলা বন্দুক ও ২ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।
অন্যান্য আসামীদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে এর আগেও হত্যাসহ ২টি মামলা রয়েছে বলে জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অনির্বাণ চৌধুরী।