ঢাকা ০৯:২৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

 পৃথিবীতে কোন দেশের মেয়েরা সবচেয়ে বেশি সুন্দরী

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৭:৫৭:৪০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪ ১৭৩ বার পঠিত

আল্লাহর সৃষ্টি প্রতিটি জিনিসই সুন্দর। প্রতিটি প্রাণীর গড়ন, অবয়বের ধরন একেক রকম। সৃষ্টিকর্তার সবচেয়ে বড় সৌন্দর্য মানুষ। তার মধ্যে সুন্দর সৃষ্টি হচ্ছে নারী। নারীরা সব সময়ই সুন্দর। তারা যেখানে যেভাবেই থাকুক না কেন। বিশ্বের প্রতিটি দেশেই সুন্দরী নারী রয়েছে। তবে কয়েকটি দেশের নারীরা হয় সেরা রূপবতী। জন্ম থেকেই সেই দেশের নারীরা হয় সৌন্দর্যের প্রতীক। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক বিশ্বের কোন দেশের নারীরা সেরা রূপবতী-

বিশ্বে ইউক্রেনের নারীরা সৌন্দর্যের জন্য সবচেয়ে বেশি বিখ্যাত। এই দেশের অধিকাংশ নারীই সুন্দর। দেশটির রাজধানী কিয়েভসহ অডেসা ও ব্ল্যাক সি কোস্টে সুন্দরীদের বসবাস। তারা ব্যবসার বড় অংশজুড়ে রয়েছেন। ব্যবসায়ী নারীদের চোখধাঁধানো রূপ দেখে মুগ্ধ হবেন যে কেউ।

সুইডেনের সুন্দরীরা; সুইডেনের নারী-পুরুষরা উভয়ই সুন্দর। বলা যায়, পুরো বিশ্বের সুদর্শন পুরুষ ও রূপবতী নারীরা এখানে বাস করেন। এই দেশের প্রতিটি নারীই সুন্দর। তাদের রূপে মুগ্ধ হয়ে যাবেন। লম্বা, স্বর্ণকেশী আর নীলনয়না নারীদের দিকে তাকালে চোখ ধাঁধিয়ে যাবে। এরা উচ্চশিক্ষিতও।

থাইল্যান্ডের সুন্দরীরা; থাইল্যান্ড পর্যটনের জন্য় বিখ্যাত। সেই দেশের নারীরাও সুন্দর হয়। নারীদের লাজুক সৌন্দর্যে মুগ্ধ হবেন যে কেউ। সঙ্গে শিশুসুলভ আর লজ্জারাঙা চেহারা নজর কেড়ে নেয়। তাদের রূপের সঙ্গে কোমলতার অপূর্ব মিশ্রণ রয়েছে।

বুলগেরিয়ার সুন্দরীরা; বুলগেরিয়া হচ্ছে পূর্ব ইউরোপের দেশ। এই দেশের নারীদের রূপ পরীদের সঙ্গে তুলনা করা হয়। দীর্ঘ দেহ, উজ্জ্বল বর্ণ, ঘন কালো চুল এবং ভাসা চোখ সবকিছুই নজরকাড়া।

রাশিয়ার সুন্দরীরা; বিশ্বের সেরা সুন্দরী নারীদের আবাসস্থল রাশিয়াতেই। নীল নয়না, স্বর্ণাকেশ আর দেহের গড়নে এ দেশের নারীরা সেরা। সৃষ্টিকর্তা নারীর সৌন্দর্যের প্রকৃত রূপ যেন তাদেরই দিয়েছেন। সেই সঙ্গে তারা দারুণ বুদ্ধিমত্তার অধিকারী।

নেদারল্যান্ডসের সুন্দরীরা; আতিথেয়তার জন্য বিখ্যাত নেদারল্যান্ডস। আরো বিখ্যাত রূপবতী নারীদের জন্য়। এই দেশের নারীরা দীর্ঘকায়। তাদের গড় উচ্চতা হয় ৫ ফুট ৮ ইঞ্চি, যা সৌন্দর্যকে আরও বাড়িয়ে দেয়। এই দেশের নারীরা বন্ধুসুলভও বটে।

আরবের সুন্দরীরা; আরবের সুন্দরীরা রূপে গুণে অনন্য। তারা বাঁকবহুল দেহের অধিকারিণী। এই দেশের নারীদের চাহনিতে পাগল পুরো বিশ্ব। তাদের চোখে রয়েছে অদ্ভূত মায়া। যে মায়ার জাদুতে আটকে যাবে যে কেউ।

ভারতের সুন্দরীরা; দেশি রূপে অনন্য ভারতীয় নারীরা। বিশ্বের সেরা সুন্দরীর প্রতিযোগিতায় বেশ কয়েকবার খেতাব জিতেছেন ভারতের রূপবতী নারীরা। এই দেশের নারীদের রূপের সঙ্গে মিশে আছে রসালোভাব। সেই সঙ্গে তাদের চলনে ধারণ করে দেশীয় সংস্কৃতিকে।

ব্রাজিলের সুন্দরীরা; নারীর সৌন্দর্যের দিক থেকে ব্রাজিলের নারীরা পিছিয়ে নেই। পুরো বিশ্ব জানে ব্রাজিলের নারীদের রূপকথা। দৈহিক বৈচিত্র্যে যেমন তারা অনন্য, তেমনই অনন্য তাদের চালচলন।

আর্জেন্টিনার সুন্দরীরা; দক্ষিণ আমেরিকার মনোমুগ্ধকর সৈকতের দেশ হচ্ছে আর্জেন্টিনা। এই দেশের নারীদের পশ্চিম গোলার্ধের সবচেয়ে সুন্দরী বলা হয়। তারা বন্ধুসুলভ। রূপমাধুর্যে তারা অনেক এগিয়ে।

 পৃথিবীতে কোন দেশের মেয়েরা সবচেয়ে বেশি সুন্দরী

আপডেট সময় : ০৭:৫৭:৪০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪

আল্লাহর সৃষ্টি প্রতিটি জিনিসই সুন্দর। প্রতিটি প্রাণীর গড়ন, অবয়বের ধরন একেক রকম। সৃষ্টিকর্তার সবচেয়ে বড় সৌন্দর্য মানুষ। তার মধ্যে সুন্দর সৃষ্টি হচ্ছে নারী। নারীরা সব সময়ই সুন্দর। তারা যেখানে যেভাবেই থাকুক না কেন। বিশ্বের প্রতিটি দেশেই সুন্দরী নারী রয়েছে। তবে কয়েকটি দেশের নারীরা হয় সেরা রূপবতী। জন্ম থেকেই সেই দেশের নারীরা হয় সৌন্দর্যের প্রতীক। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক বিশ্বের কোন দেশের নারীরা সেরা রূপবতী-

বিশ্বে ইউক্রেনের নারীরা সৌন্দর্যের জন্য সবচেয়ে বেশি বিখ্যাত। এই দেশের অধিকাংশ নারীই সুন্দর। দেশটির রাজধানী কিয়েভসহ অডেসা ও ব্ল্যাক সি কোস্টে সুন্দরীদের বসবাস। তারা ব্যবসার বড় অংশজুড়ে রয়েছেন। ব্যবসায়ী নারীদের চোখধাঁধানো রূপ দেখে মুগ্ধ হবেন যে কেউ।

সুইডেনের সুন্দরীরা; সুইডেনের নারী-পুরুষরা উভয়ই সুন্দর। বলা যায়, পুরো বিশ্বের সুদর্শন পুরুষ ও রূপবতী নারীরা এখানে বাস করেন। এই দেশের প্রতিটি নারীই সুন্দর। তাদের রূপে মুগ্ধ হয়ে যাবেন। লম্বা, স্বর্ণকেশী আর নীলনয়না নারীদের দিকে তাকালে চোখ ধাঁধিয়ে যাবে। এরা উচ্চশিক্ষিতও।

থাইল্যান্ডের সুন্দরীরা; থাইল্যান্ড পর্যটনের জন্য় বিখ্যাত। সেই দেশের নারীরাও সুন্দর হয়। নারীদের লাজুক সৌন্দর্যে মুগ্ধ হবেন যে কেউ। সঙ্গে শিশুসুলভ আর লজ্জারাঙা চেহারা নজর কেড়ে নেয়। তাদের রূপের সঙ্গে কোমলতার অপূর্ব মিশ্রণ রয়েছে।

বুলগেরিয়ার সুন্দরীরা; বুলগেরিয়া হচ্ছে পূর্ব ইউরোপের দেশ। এই দেশের নারীদের রূপ পরীদের সঙ্গে তুলনা করা হয়। দীর্ঘ দেহ, উজ্জ্বল বর্ণ, ঘন কালো চুল এবং ভাসা চোখ সবকিছুই নজরকাড়া।

রাশিয়ার সুন্দরীরা; বিশ্বের সেরা সুন্দরী নারীদের আবাসস্থল রাশিয়াতেই। নীল নয়না, স্বর্ণাকেশ আর দেহের গড়নে এ দেশের নারীরা সেরা। সৃষ্টিকর্তা নারীর সৌন্দর্যের প্রকৃত রূপ যেন তাদেরই দিয়েছেন। সেই সঙ্গে তারা দারুণ বুদ্ধিমত্তার অধিকারী।

নেদারল্যান্ডসের সুন্দরীরা; আতিথেয়তার জন্য বিখ্যাত নেদারল্যান্ডস। আরো বিখ্যাত রূপবতী নারীদের জন্য়। এই দেশের নারীরা দীর্ঘকায়। তাদের গড় উচ্চতা হয় ৫ ফুট ৮ ইঞ্চি, যা সৌন্দর্যকে আরও বাড়িয়ে দেয়। এই দেশের নারীরা বন্ধুসুলভও বটে।

আরবের সুন্দরীরা; আরবের সুন্দরীরা রূপে গুণে অনন্য। তারা বাঁকবহুল দেহের অধিকারিণী। এই দেশের নারীদের চাহনিতে পাগল পুরো বিশ্ব। তাদের চোখে রয়েছে অদ্ভূত মায়া। যে মায়ার জাদুতে আটকে যাবে যে কেউ।

ভারতের সুন্দরীরা; দেশি রূপে অনন্য ভারতীয় নারীরা। বিশ্বের সেরা সুন্দরীর প্রতিযোগিতায় বেশ কয়েকবার খেতাব জিতেছেন ভারতের রূপবতী নারীরা। এই দেশের নারীদের রূপের সঙ্গে মিশে আছে রসালোভাব। সেই সঙ্গে তাদের চলনে ধারণ করে দেশীয় সংস্কৃতিকে।

ব্রাজিলের সুন্দরীরা; নারীর সৌন্দর্যের দিক থেকে ব্রাজিলের নারীরা পিছিয়ে নেই। পুরো বিশ্ব জানে ব্রাজিলের নারীদের রূপকথা। দৈহিক বৈচিত্র্যে যেমন তারা অনন্য, তেমনই অনন্য তাদের চালচলন।

আর্জেন্টিনার সুন্দরীরা; দক্ষিণ আমেরিকার মনোমুগ্ধকর সৈকতের দেশ হচ্ছে আর্জেন্টিনা। এই দেশের নারীদের পশ্চিম গোলার্ধের সবচেয়ে সুন্দরী বলা হয়। তারা বন্ধুসুলভ। রূপমাধুর্যে তারা অনেক এগিয়ে।