ঢাকা ০৩:০৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নির্বাচনে দাঁড়াতে ইলিয়াসের ছেলেকেও ম্যানেজ করেছিলো নিপুণ!

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৫:৪৯:৪০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ মার্চ ২০২৪ ২৩ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধি:

ইলিয়াস কাঞ্চনের পদত্যাগ বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন নিয়ে আবারো আলোচনার জন্ম দিয়েছে। এক সময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন জানালেন তিনি কেন নিপুণের প্যানেলে নির্বাচনে দাঁড়িয়েছিলেন।

গণমাধ্যম অনুযায়ী, বড় একজন রাজনীতিবিদের অনুরোধে শিল্পী সমিতির নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছিলেন বলে জানিয়েছেন বরেণ্য অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এমন দাবি করেছেন তিনি।

ইলিয়াস কাঞ্চনের ভাষ্য, নির্বাচনে দাঁড়াতে নিপুণ শুধু আমাকেই নয়, আমার ছেলেকেও ম্যনেজ করেছে। তবুও আমি দাঁড়াতাম না। আমাদের দেশের একজন প্রবীণ রাজনীতিবিদ অনুরোধ করেছিলেন। কারণ, তার প্রতি আমার ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা আছে, যার কারণে আমাকে এই জায়গায় আসতে হয়েছে।

ওই সাক্ষাৎকারে তিনি আরও বলেন, আমার তরফ থেকে কোনো ক্রটি আমি করিনি। ভালো হতো আমাদের সবাই যদি এক মানসিকতার হতো। বছরে অন্তত একটি সাধারণ সভার নিয়ম আছে, কিন্তু আমরা সেটিও করতে পারিনি। আসলে এত অনিয়ম যে একা একটা মানুষ তো আর সব করতে পারে না।

নির্বাচনে দাঁড়াতে ইলিয়াসের ছেলেকেও ম্যানেজ করেছিলো নিপুণ!

আপডেট সময় : ০৫:৪৯:৪০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ মার্চ ২০২৪

নিজস্ব প্রতিনিধি:

ইলিয়াস কাঞ্চনের পদত্যাগ বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন নিয়ে আবারো আলোচনার জন্ম দিয়েছে। এক সময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন জানালেন তিনি কেন নিপুণের প্যানেলে নির্বাচনে দাঁড়িয়েছিলেন।

গণমাধ্যম অনুযায়ী, বড় একজন রাজনীতিবিদের অনুরোধে শিল্পী সমিতির নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছিলেন বলে জানিয়েছেন বরেণ্য অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এমন দাবি করেছেন তিনি।

ইলিয়াস কাঞ্চনের ভাষ্য, নির্বাচনে দাঁড়াতে নিপুণ শুধু আমাকেই নয়, আমার ছেলেকেও ম্যনেজ করেছে। তবুও আমি দাঁড়াতাম না। আমাদের দেশের একজন প্রবীণ রাজনীতিবিদ অনুরোধ করেছিলেন। কারণ, তার প্রতি আমার ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা আছে, যার কারণে আমাকে এই জায়গায় আসতে হয়েছে।

ওই সাক্ষাৎকারে তিনি আরও বলেন, আমার তরফ থেকে কোনো ক্রটি আমি করিনি। ভালো হতো আমাদের সবাই যদি এক মানসিকতার হতো। বছরে অন্তত একটি সাধারণ সভার নিয়ম আছে, কিন্তু আমরা সেটিও করতে পারিনি। আসলে এত অনিয়ম যে একা একটা মানুষ তো আর সব করতে পারে না।