ঢাকা ০৩:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নির্বাচনে জয়লাভের পর মার্কিন গণতন্ত্রকে কটাক্ষ করলেন পুতিন!

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০১:৫৯:২৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৮ মার্চ ২০২৪ ২১ বার পঠিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

নির্বাচনে জয়লাভের পর রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন মার্কিন গণতন্ত্রের কটাক্ষ করেছেন। তিনি বলেন, রাশিয়ার গণতন্ত্র পশ্চিমা দেশের তুলনায় বেশি স্বচ্ছ। এই নির্বাচনটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মেইল-ইন ভোটিংয়ের মতো নয়, যেখানে একটি ভোট ১০ ডলার দিয়ে কেনা যায়।

রোববার রাশিয়ার নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে সাক্ষাতকালে একথা বলেন পুতিন।

পুতিন বলেন, (যুক্তরাষ্ট্রে) যা ঘটছে, তাতে পুরো বিশ্ব হাসছে। এটা শুধু একটা বিপর্যয়, গণতন্ত্র নয়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে একজন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থীকে আক্রমণ করার জন্য প্রশাসন, বিচারব্যবস্থাসহ অন্যান্য বিষয়ের ব্যবহার করা কি গণতান্ত্রিক?

ন্যাটো কি রাশিয়ার সাথে সরাসরি সংঘর্ষে নামতে পারে? এমন প্রশ্নের জবাবে পুতিন তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, বর্তমান বিশ্বে সবকিছুই সম্ভব। এটা সবার কাছে খুব স্পষ্ট। ন্যাটো যদি রাশিয়ার সাথে সরাসরি যুদ্ধ শুরু করে তাহলে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের আর দেরি নেই। কিন্তু আমি মনে করি না যে কেউ চায় ন্যাটো রাশিয়ার সাথে যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ুক।

এবারের রাশিয়ার নির্বাচনে পুতিনের পক্ষে ভোট পড়েছে ৮৭ দশমিক ৮ শতাংশ। ভোটগ্রহণের শেষ দিনে বুথফেরত জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে। গত শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছিল রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোটগ্রহণ। গতকাল সবশেষ দেশটির সবচেয়ে পশ্চিমে বাল্টিক সাগরের তীরে কালিনিনগ্রাদ অঞ্চলে ভোটগ্রহণ হয়। এর পর বুথফেরত জরিপের ফল প্রকাশ করে রাশিয়ার সরকারি জরিপ সংস্থা ভিটিএসআইওএম। নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণার আগে এ জরিপ করা হয়।

এই নির্বাচনে জয়লাভ করে রাশিয়ার ২০০ বছরের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সময় ক্ষমতায় থাকতে যাচ্ছেন পুতিন।
নির্বাচনে জয়লাভের পর মার্কিন গণতন্ত্রকে কটাক্ষ করলেন পুতিন!
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

নির্বাচনে জয়লাভের পর রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন মার্কিন গণতন্ত্রের কটাক্ষ করেছেন। তিনি বলেন, রাশিয়ার গণতন্ত্র পশ্চিমা দেশের তুলনায় বেশি স্বচ্ছ। এই নির্বাচনটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মেইল-ইন ভোটিংয়ের মতো নয়, যেখানে একটি ভোট ১০ ডলার দিয়ে কেনা যায়।

রোববার রাশিয়ার নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে সাক্ষাতকালে একথা বলেন পুতিন।

পুতিন বলেন, (যুক্তরাষ্ট্রে) যা ঘটছে, তাতে পুরো বিশ্ব হাসছে। এটা শুধু একটা বিপর্যয়, গণতন্ত্র নয়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে একজন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থীকে আক্রমণ করার জন্য প্রশাসন, বিচারব্যবস্থাসহ অন্যান্য বিষয়ের ব্যবহার করা কি গণতান্ত্রিক?

ন্যাটো কি রাশিয়ার সাথে সরাসরি সংঘর্ষে নামতে পারে? এমন প্রশ্নের জবাবে পুতিন তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, বর্তমান বিশ্বে সবকিছুই সম্ভব। এটা সবার কাছে খুব স্পষ্ট। ন্যাটো যদি রাশিয়ার সাথে সরাসরি যুদ্ধ শুরু করে তাহলে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের আর দেরি নেই। কিন্তু আমি মনে করি না যে কেউ চায় ন্যাটো রাশিয়ার সাথে যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ুক।

এবারের রাশিয়ার নির্বাচনে পুতিনের পক্ষে ভোট পড়েছে ৮৭ দশমিক ৮ শতাংশ। ভোটগ্রহণের শেষ দিনে বুথফেরত জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে। গত শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছিল রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোটগ্রহণ। গতকাল সবশেষ দেশটির সবচেয়ে পশ্চিমে বাল্টিক সাগরের তীরে কালিনিনগ্রাদ অঞ্চলে ভোটগ্রহণ হয়। এর পর বুথফেরত জরিপের ফল প্রকাশ করে রাশিয়ার সরকারি জরিপ সংস্থা ভিটিএসআইওএম। নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণার আগে এ জরিপ করা হয়।

এই নির্বাচনে জয়লাভ করে রাশিয়ার ২০০ বছরের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সময় ক্ষমতায় থাকতে যাচ্ছেন পুতিন।

নির্বাচনে জয়লাভের পর মার্কিন গণতন্ত্রকে কটাক্ষ করলেন পুতিন!

আপডেট সময় : ০১:৫৯:২৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৮ মার্চ ২০২৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

নির্বাচনে জয়লাভের পর রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন মার্কিন গণতন্ত্রের কটাক্ষ করেছেন। তিনি বলেন, রাশিয়ার গণতন্ত্র পশ্চিমা দেশের তুলনায় বেশি স্বচ্ছ। এই নির্বাচনটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মেইল-ইন ভোটিংয়ের মতো নয়, যেখানে একটি ভোট ১০ ডলার দিয়ে কেনা যায়।

রোববার রাশিয়ার নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে সাক্ষাতকালে একথা বলেন পুতিন।

পুতিন বলেন, (যুক্তরাষ্ট্রে) যা ঘটছে, তাতে পুরো বিশ্ব হাসছে। এটা শুধু একটা বিপর্যয়, গণতন্ত্র নয়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে একজন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থীকে আক্রমণ করার জন্য প্রশাসন, বিচারব্যবস্থাসহ অন্যান্য বিষয়ের ব্যবহার করা কি গণতান্ত্রিক?

ন্যাটো কি রাশিয়ার সাথে সরাসরি সংঘর্ষে নামতে পারে? এমন প্রশ্নের জবাবে পুতিন তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, বর্তমান বিশ্বে সবকিছুই সম্ভব। এটা সবার কাছে খুব স্পষ্ট। ন্যাটো যদি রাশিয়ার সাথে সরাসরি যুদ্ধ শুরু করে তাহলে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের আর দেরি নেই। কিন্তু আমি মনে করি না যে কেউ চায় ন্যাটো রাশিয়ার সাথে যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ুক।

এবারের রাশিয়ার নির্বাচনে পুতিনের পক্ষে ভোট পড়েছে ৮৭ দশমিক ৮ শতাংশ। ভোটগ্রহণের শেষ দিনে বুথফেরত জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে। গত শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছিল রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোটগ্রহণ। গতকাল সবশেষ দেশটির সবচেয়ে পশ্চিমে বাল্টিক সাগরের তীরে কালিনিনগ্রাদ অঞ্চলে ভোটগ্রহণ হয়। এর পর বুথফেরত জরিপের ফল প্রকাশ করে রাশিয়ার সরকারি জরিপ সংস্থা ভিটিএসআইওএম। নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণার আগে এ জরিপ করা হয়।

এই নির্বাচনে জয়লাভ করে রাশিয়ার ২০০ বছরের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সময় ক্ষমতায় থাকতে যাচ্ছেন পুতিন।
নির্বাচনে জয়লাভের পর মার্কিন গণতন্ত্রকে কটাক্ষ করলেন পুতিন!
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

নির্বাচনে জয়লাভের পর রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন মার্কিন গণতন্ত্রের কটাক্ষ করেছেন। তিনি বলেন, রাশিয়ার গণতন্ত্র পশ্চিমা দেশের তুলনায় বেশি স্বচ্ছ। এই নির্বাচনটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মেইল-ইন ভোটিংয়ের মতো নয়, যেখানে একটি ভোট ১০ ডলার দিয়ে কেনা যায়।

রোববার রাশিয়ার নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে সাক্ষাতকালে একথা বলেন পুতিন।

পুতিন বলেন, (যুক্তরাষ্ট্রে) যা ঘটছে, তাতে পুরো বিশ্ব হাসছে। এটা শুধু একটা বিপর্যয়, গণতন্ত্র নয়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে একজন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থীকে আক্রমণ করার জন্য প্রশাসন, বিচারব্যবস্থাসহ অন্যান্য বিষয়ের ব্যবহার করা কি গণতান্ত্রিক?

ন্যাটো কি রাশিয়ার সাথে সরাসরি সংঘর্ষে নামতে পারে? এমন প্রশ্নের জবাবে পুতিন তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, বর্তমান বিশ্বে সবকিছুই সম্ভব। এটা সবার কাছে খুব স্পষ্ট। ন্যাটো যদি রাশিয়ার সাথে সরাসরি যুদ্ধ শুরু করে তাহলে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের আর দেরি নেই। কিন্তু আমি মনে করি না যে কেউ চায় ন্যাটো রাশিয়ার সাথে যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ুক।

এবারের রাশিয়ার নির্বাচনে পুতিনের পক্ষে ভোট পড়েছে ৮৭ দশমিক ৮ শতাংশ। ভোটগ্রহণের শেষ দিনে বুথফেরত জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে। গত শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছিল রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোটগ্রহণ। গতকাল সবশেষ দেশটির সবচেয়ে পশ্চিমে বাল্টিক সাগরের তীরে কালিনিনগ্রাদ অঞ্চলে ভোটগ্রহণ হয়। এর পর বুথফেরত জরিপের ফল প্রকাশ করে রাশিয়ার সরকারি জরিপ সংস্থা ভিটিএসআইওএম। নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণার আগে এ জরিপ করা হয়।

এই নির্বাচনে জয়লাভ করে রাশিয়ার ২০০ বছরের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সময় ক্ষমতায় থাকতে যাচ্ছেন পুতিন।