ঢাকা ০৬:২০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জিসিএ’র লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড পেলেন প্রধানমন্ত্রী

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০২:০৩:০১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪ ৬২ বার পঠিত

গ্লোবাল সেন্টার অন অ্যাডাপটেশন (জিসিএ) লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার (১১ জুন)  বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় স্থানীয় অভিযোজন কর্মসূচি চালু করার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকার জন্য তিনিই প্রথম এই পুরস্কার লাভ করেন।

জিসিএর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) অধ্যাপক প্যাট্রিক ভি ভার্কুইজেন গতকাল গণভবনে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে প্রধানমন্ত্রীর হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন।

পরে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব মো. নাঈমুল ইসলাম খান এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেন, ‘স্থানীয়ভাবে প্রণীত জলবায়ু অভিযোজন কর্মসূচি গ্রহণে অগ্রণী ভূমিকার জন্য বাংলাদেশ এই অ্যাওয়ার্ড জিতেছে।’

তিনি বলেন, ‘জিসিএ’র নিয়ম অনুযায়ী বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী পরবর্তী পুরস্কার প্রাপক নির্বাচন প্রক্রিয়ার সঙ্গে থাকবেন।’

জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়ে স্থানীয় সরকারের উদ্যোগের জন্য উন্নয়নশীল অর্থায়নে উদ্ভাবনের বিভাগে গ্লোবাল লোকাল অ্যাডাপ্টেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড (এলওজিআইসি) প্রাপ্ত প্রথম দেশ বাংলাদেশ।

পুরস্কার গ্রহণের পর প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের সরকার ও জনগণের পক্ষ থেকে এই মর্যাদাপূর্ণ অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করতে পেরে আমি গভীরভাবে সম্মানিত।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এই স্বীকৃতি টেকসই উন্নয়ন এবং জলবায়ু সহনশীলতার প্রতি আমাদের প্রতিশ্রুতিকে জোরদার করে এবং আমরা একটি সমৃদ্ধ এবং স্থিতিস্থাপক ভবিষ্যতের দিকে আমাদের যাত্রায় গ্লোবাল সেন্টার অন অ্যাডাপটেশনের অমূল্য সমর্থনের জন্য কৃতজ্ঞ।’

তিনি ভারকুইজেনকে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় তার সরকারের গৃহীত পদক্ষেপ সম্পর্কে অবহিত করেন।

জিসিএ’র লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড পেলেন প্রধানমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০২:০৩:০১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪

গ্লোবাল সেন্টার অন অ্যাডাপটেশন (জিসিএ) লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার (১১ জুন)  বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় স্থানীয় অভিযোজন কর্মসূচি চালু করার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকার জন্য তিনিই প্রথম এই পুরস্কার লাভ করেন।

জিসিএর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) অধ্যাপক প্যাট্রিক ভি ভার্কুইজেন গতকাল গণভবনে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে প্রধানমন্ত্রীর হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন।

পরে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব মো. নাঈমুল ইসলাম খান এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেন, ‘স্থানীয়ভাবে প্রণীত জলবায়ু অভিযোজন কর্মসূচি গ্রহণে অগ্রণী ভূমিকার জন্য বাংলাদেশ এই অ্যাওয়ার্ড জিতেছে।’

তিনি বলেন, ‘জিসিএ’র নিয়ম অনুযায়ী বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী পরবর্তী পুরস্কার প্রাপক নির্বাচন প্রক্রিয়ার সঙ্গে থাকবেন।’

জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়ে স্থানীয় সরকারের উদ্যোগের জন্য উন্নয়নশীল অর্থায়নে উদ্ভাবনের বিভাগে গ্লোবাল লোকাল অ্যাডাপ্টেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড (এলওজিআইসি) প্রাপ্ত প্রথম দেশ বাংলাদেশ।

পুরস্কার গ্রহণের পর প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের সরকার ও জনগণের পক্ষ থেকে এই মর্যাদাপূর্ণ অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করতে পেরে আমি গভীরভাবে সম্মানিত।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এই স্বীকৃতি টেকসই উন্নয়ন এবং জলবায়ু সহনশীলতার প্রতি আমাদের প্রতিশ্রুতিকে জোরদার করে এবং আমরা একটি সমৃদ্ধ এবং স্থিতিস্থাপক ভবিষ্যতের দিকে আমাদের যাত্রায় গ্লোবাল সেন্টার অন অ্যাডাপটেশনের অমূল্য সমর্থনের জন্য কৃতজ্ঞ।’

তিনি ভারকুইজেনকে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় তার সরকারের গৃহীত পদক্ষেপ সম্পর্কে অবহিত করেন।