ঢাকা ০৫:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ছোট্ট একটি আমল,যে আমলে নারীকে জান্নাত দান করবেন আল্লাহ

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৫:২১:৩১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩০ এপ্রিল ২০২৩ ২১ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধি:
একটি ছোট কাজ। আপনার সন্তানকে আহার করানো। সন্তানের প্রতি ভালবাসা এবং যত্ন নেওয়া। এর বিনিময়ে জান্নাত লাভের পাশাপাশি জাহান্নাম থেকে মুক্তির সুসংবাদ রয়েছে। নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম হাদীসের বর্ণনায় এ বিষয়টি স্পষ্ট করেছেন। হাদীসে উল্লেখ করা হয়েছে-

এক দরিদ্র মহিলা তার দুই মেয়েকে নিয়ে উম্মুল মু’মিনীন হযরত আয়েশা সিদ্দীকা রাদিয়াল্লাহু আনহার কাছে আসলেন এবং তিনি তাকে তিনটি খেজুর দিলেন। মহিলাটি তার দুই মেয়েকে দুটি খেজুর দিয়েছিল এবং একটি খেতে তার মুখের কাছে নিয়ে যাচ্ছিল; এ সময় শিশুরাও তা খেতে চায়। তাই এই মহিলা খেজুরটি দুই ভাগ করে তাদের মুখে তুলে দিলেন। সুবহানাল্লাহ!
হজরত আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা বলেন, আমি মহিলাটির এমন কাজ দেখে অভিভূত হয়েছিলাম, তাই ঘটনাটি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে জানালাম। তিনি বললেন, হে আয়েশা! আল্লাহ তায়ালা এই মহিলাকে জান্নাত দান করবেন এবং জাহান্নাম থেকে মুক্তি দেবেন। (মুসলিম, রিয়াদুস সালিহীন)

এ হাদিসে সন্তানের প্রতি মায়ের ভালোবাসার উদাহরণ রয়েছে। সেই ভালোবাসার কারণে মা নিজে না খেয়ে একটি খেজুর দুই সন্তানের মধ্যে ভাগ করে দিয়েছিলেন। ফলে নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এই নারীকে জান্নাতি ঘোষণা করেন।

আল্লাহ তায়ালা পৃথিবীর সকল মাকে তাদের সন্তানদের প্রতি সদয় ও সহানুভূতিশীল হওয়ার তাওফীক দান করুন। সকল মমতাময়ী মাকে জান্নাতের মেহমান হিসেবে গ্রহণ করুন। আমীন।

ছোট্ট একটি আমল,যে আমলে নারীকে জান্নাত দান করবেন আল্লাহ

আপডেট সময় : ০৫:২১:৩১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩০ এপ্রিল ২০২৩

নিজস্ব প্রতিনিধি:
একটি ছোট কাজ। আপনার সন্তানকে আহার করানো। সন্তানের প্রতি ভালবাসা এবং যত্ন নেওয়া। এর বিনিময়ে জান্নাত লাভের পাশাপাশি জাহান্নাম থেকে মুক্তির সুসংবাদ রয়েছে। নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম হাদীসের বর্ণনায় এ বিষয়টি স্পষ্ট করেছেন। হাদীসে উল্লেখ করা হয়েছে-

এক দরিদ্র মহিলা তার দুই মেয়েকে নিয়ে উম্মুল মু’মিনীন হযরত আয়েশা সিদ্দীকা রাদিয়াল্লাহু আনহার কাছে আসলেন এবং তিনি তাকে তিনটি খেজুর দিলেন। মহিলাটি তার দুই মেয়েকে দুটি খেজুর দিয়েছিল এবং একটি খেতে তার মুখের কাছে নিয়ে যাচ্ছিল; এ সময় শিশুরাও তা খেতে চায়। তাই এই মহিলা খেজুরটি দুই ভাগ করে তাদের মুখে তুলে দিলেন। সুবহানাল্লাহ!
হজরত আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা বলেন, আমি মহিলাটির এমন কাজ দেখে অভিভূত হয়েছিলাম, তাই ঘটনাটি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে জানালাম। তিনি বললেন, হে আয়েশা! আল্লাহ তায়ালা এই মহিলাকে জান্নাত দান করবেন এবং জাহান্নাম থেকে মুক্তি দেবেন। (মুসলিম, রিয়াদুস সালিহীন)

এ হাদিসে সন্তানের প্রতি মায়ের ভালোবাসার উদাহরণ রয়েছে। সেই ভালোবাসার কারণে মা নিজে না খেয়ে একটি খেজুর দুই সন্তানের মধ্যে ভাগ করে দিয়েছিলেন। ফলে নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এই নারীকে জান্নাতি ঘোষণা করেন।

আল্লাহ তায়ালা পৃথিবীর সকল মাকে তাদের সন্তানদের প্রতি সদয় ও সহানুভূতিশীল হওয়ার তাওফীক দান করুন। সকল মমতাময়ী মাকে জান্নাতের মেহমান হিসেবে গ্রহণ করুন। আমীন।