ঢাকা ০৮:৪৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo নরসিংদীতে সংবর্ধনা নেওয়ার সময় ভূয়া ম্যাজিস্ট্রেট আটক, তিন মাসের সাজা Logo দেশের বাজারে বয়া এর নতুন অল ইন ওয়ান ওয়ারলেস মাইক্রোফোন Logo সাড়ে চারশ কোটির হীরার নেকলেসে নজর কাড়লেন প্রিয়াঙ্কা Logo  পৃথিবীতে কোন দেশের মেয়েরা সবচেয়ে বেশি সুন্দরী Logo বাংলাদেশ ব্যাংকে সাংবাদিক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেশের গণতন্ত্র-মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী Logo ঈদের সময় ১১ দিন বাল্কহেড চলাচল বন্ধ Logo বিএসআরএফ বার্তা’র মোড়ক উম্মোচন করলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী Logo টানা ছয় ম্যাচ জিতে প্লে অফ নিশ্চিত করলেও শেষমেশ বিদায় নিলো বেঙ্গালুরু Logo গাজায় মসজিদে ইসরায়েলি হামলা, ১০ শিশুসহ নিহত ১৬ Logo এমপি আনোয়ারুল হত্যাকাণ্ড: ঢাকায় আসছে ভারতীয় পুলিশের স্পেশাল টিম

গুচ্ছেই থাকছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৪:১৬:৫০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৩ ১০ বার পঠিত

সাকিবুল ইসলাম, জবি প্রতিনিধি:
২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক ও বিবিএ প্রথম বর্ষে ভর্তিতে অবশেষে গুচ্ছ প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই শিক্ষার্থী ভর্তি করাবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি)। দ্রুতই গুচ্ছ ভর্তি প্রক্রিয়ার কার্যক্রম শুরু করা হবে। এ বছর গুচ্ছ ভর্তি প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করার জন্য সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর কাছে রাষ্ট্রপতির পক্ষ থেকে একটি আদেশ পাঠানো হয়েছে।
আজ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক এসব তথ্য জানিয়েছেন।
উপাচার্য ইমদাদুল হক বলেন, যেহেতু রাষ্ট্রপতি আদেশ দিয়েছেন সেটা অমান্য করার সুযোগ নেই। তাই আমাদের গুচ্ছের মাধ্যমেই শিক্ষার্থী ভর্তি করাতে হবে এবছর। আর ভর্তি পরীক্ষার জন্য আগে যে কমিটিগুলো গঠন করা হয়েছিল তা বহাল থাকবে।
উপাচার্য বলেন, রাষ্ট্রপতির আদেশ অনুযায়ী ২২ বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছে থাকছে। গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার তারিখও চূড়ান্ত করা হয়েছে। তবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের সভার কারণে গুচ্ছের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের সময় একদিন পিছিয়ে দেয়া হয়েছে। আজ রাতে গুচ্ছের ওয়েবসাইটে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে।আগামীকাল পত্রিকায় ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে।
তিনি বলেন, ১৫ এপ্রিল থেকে ভর্তি আবেদন শুরু হওয়ার কথা থাকলেও এটি পরিবর্তন করা হয়েছে। আগামী ১৮ এপ্রিল থেকে অনলাইনে ভর্তি আবেদন শুরু হবে। আবেদন চলবে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত। এছাড়া ৩ জুনের মধ্যে ভর্তি পরীক্ষা শেষ করা হবে।
উপাচার্য আরও বলেন, আগামী ২০ মে মানবিক বিভাগ, ২৭ মে বিজ্ঞান বিভাগ ও ৩ জুন ব্যবসায় শিক্ষা শাখা অনুষদের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ৮ জুনের মধ্যে ফল প্রকাশ করা হবে।
সেকেন্ড টাইম অর্থাৎ দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযোগ থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আবেদনের ক্ষেত্রে কোন বিভাগের জন্য কত জিপিএ লাগবে এবং বিভাগভিত্তিক আবেদন ফি এখনো চূড়ান্ত করা হয়নি। আগামী সভায় বাকি বিষয়গুলো চূড়ান্ত করা হবে।’
এদিকে ১৫ এপ্রিল রাষ্ট্রপতির আদেশে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। সে প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, বিগত সময়ে যে ২২ বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছে অংশগ্রহণ করেছিল ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে সেসকল বিশ্ববিদ্যালয়ের অংশগ্রহণে ভর্তি পরীক্ষা কার্যক্রম সম্পন্ন করার এবং ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষ হতে সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়কে একক ভর্তি পরীক্ষার আওতায় নেয়ার প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনকে দায়িত্ব প্রদান করা হলো।
এর আগে ১৫ মার্চ বিশেষ একাডেমিক কাউন্সিলে গুচ্ছে না থাকার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়। এরপর গত ১৯ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষক সমিতি নিজস্ব পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষার জন্য দ্রুত কার্যক্রম শুরু করার জন্য উপাচার্য বরাবর চিঠিও দিয়েছিল। ২৯ মার্চ ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে শিক্ষার্থী ভর্তিতে গুচ্ছ পদ্ধতি থেকে বের হয়ে নিজস্ব পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষায় ফিরে আসার জন্য চারদিনের আল্টিমেটাম দিয়েছিল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। ৩ এপ্রিল গুচ্ছ পদ্ধতি থেকে বের হয়ে ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় শিক্ষার্থী ভর্তির দাবিতে মানববন্ধন ও উপাচার্যের কক্ষে অবস্থান নেয় বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষকরা। পরবর্তীতে ৬ এপ্রিল বিশেষ একাডেমিক কাউন্সিলের মাধ্যমে নিজস্ব পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার জন্য তিনটি কমিটিও গঠন করেছিল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়।

গুচ্ছেই থাকছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

আপডেট সময় : ০৪:১৬:৫০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৩

সাকিবুল ইসলাম, জবি প্রতিনিধি:
২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক ও বিবিএ প্রথম বর্ষে ভর্তিতে অবশেষে গুচ্ছ প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই শিক্ষার্থী ভর্তি করাবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি)। দ্রুতই গুচ্ছ ভর্তি প্রক্রিয়ার কার্যক্রম শুরু করা হবে। এ বছর গুচ্ছ ভর্তি প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করার জন্য সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর কাছে রাষ্ট্রপতির পক্ষ থেকে একটি আদেশ পাঠানো হয়েছে।
আজ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক এসব তথ্য জানিয়েছেন।
উপাচার্য ইমদাদুল হক বলেন, যেহেতু রাষ্ট্রপতি আদেশ দিয়েছেন সেটা অমান্য করার সুযোগ নেই। তাই আমাদের গুচ্ছের মাধ্যমেই শিক্ষার্থী ভর্তি করাতে হবে এবছর। আর ভর্তি পরীক্ষার জন্য আগে যে কমিটিগুলো গঠন করা হয়েছিল তা বহাল থাকবে।
উপাচার্য বলেন, রাষ্ট্রপতির আদেশ অনুযায়ী ২২ বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছে থাকছে। গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার তারিখও চূড়ান্ত করা হয়েছে। তবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের সভার কারণে গুচ্ছের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের সময় একদিন পিছিয়ে দেয়া হয়েছে। আজ রাতে গুচ্ছের ওয়েবসাইটে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে।আগামীকাল পত্রিকায় ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে।
তিনি বলেন, ১৫ এপ্রিল থেকে ভর্তি আবেদন শুরু হওয়ার কথা থাকলেও এটি পরিবর্তন করা হয়েছে। আগামী ১৮ এপ্রিল থেকে অনলাইনে ভর্তি আবেদন শুরু হবে। আবেদন চলবে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত। এছাড়া ৩ জুনের মধ্যে ভর্তি পরীক্ষা শেষ করা হবে।
উপাচার্য আরও বলেন, আগামী ২০ মে মানবিক বিভাগ, ২৭ মে বিজ্ঞান বিভাগ ও ৩ জুন ব্যবসায় শিক্ষা শাখা অনুষদের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ৮ জুনের মধ্যে ফল প্রকাশ করা হবে।
সেকেন্ড টাইম অর্থাৎ দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযোগ থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আবেদনের ক্ষেত্রে কোন বিভাগের জন্য কত জিপিএ লাগবে এবং বিভাগভিত্তিক আবেদন ফি এখনো চূড়ান্ত করা হয়নি। আগামী সভায় বাকি বিষয়গুলো চূড়ান্ত করা হবে।’
এদিকে ১৫ এপ্রিল রাষ্ট্রপতির আদেশে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। সে প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, বিগত সময়ে যে ২২ বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছে অংশগ্রহণ করেছিল ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে সেসকল বিশ্ববিদ্যালয়ের অংশগ্রহণে ভর্তি পরীক্ষা কার্যক্রম সম্পন্ন করার এবং ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষ হতে সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়কে একক ভর্তি পরীক্ষার আওতায় নেয়ার প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনকে দায়িত্ব প্রদান করা হলো।
এর আগে ১৫ মার্চ বিশেষ একাডেমিক কাউন্সিলে গুচ্ছে না থাকার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়। এরপর গত ১৯ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষক সমিতি নিজস্ব পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষার জন্য দ্রুত কার্যক্রম শুরু করার জন্য উপাচার্য বরাবর চিঠিও দিয়েছিল। ২৯ মার্চ ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে শিক্ষার্থী ভর্তিতে গুচ্ছ পদ্ধতি থেকে বের হয়ে নিজস্ব পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষায় ফিরে আসার জন্য চারদিনের আল্টিমেটাম দিয়েছিল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। ৩ এপ্রিল গুচ্ছ পদ্ধতি থেকে বের হয়ে ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় শিক্ষার্থী ভর্তির দাবিতে মানববন্ধন ও উপাচার্যের কক্ষে অবস্থান নেয় বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষকরা। পরবর্তীতে ৬ এপ্রিল বিশেষ একাডেমিক কাউন্সিলের মাধ্যমে নিজস্ব পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার জন্য তিনটি কমিটিও গঠন করেছিল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়।