ঢাকা ০১:৩১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গত বছরের তুলনায় এ ফেব্রুয়ারিতে পোশাক রপ্তানি বৃদ্ধি পেয়েছে প্রায় ১৪%

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৬:৫০:২৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ মার্চ ২০২৪ ২৪ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধি :

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) জানিয়েছে, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে ৪৪৯ কোটি মার্কিন ডলার মূল্যের তৈরি পোশাক রপ্তানি করেছে বলে জানিয়েছে।

দেশের ইতিহাসে এই প্রথম ফেব্রুয়ারিতে এত বেশি তৈরি পোশাক রপ্তানি হয়েছে। তথ্য অনুযায়ী, গত বছরের ফেব্রুয়ারির তুলনায় তা ১৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ বেশি।

এর আগে, জানুয়ারিতে পোশাক রপ্তানি ৪৯৭ কোটি ডলার হওয়ায় তা নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করে। চলতি বছরের প্রথম দুই মাসে তৈরি পোশাক রপ্তানি হয়েছে ৯৪৭ কোটি ডলার।

২০২৩-২৪ অর্থবছরের হিসাব অনুযায়ী জুলাই থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তৈরি পোশাক রপ্তানি হয়েছে ৩ হাজার ২৮৬ মিলিয়ন ডলার। যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪ দশমিক ৭৭ শতাংশ বেশি।

মঙ্গলবার (৫ মার্চ) এক বিবৃতিতে বাংলাদেশ গার্মেন্টস ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিজিএমইএ) সভাপতি ফারুক হাসান বলেন, ‘এটি অবশ্যই আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে অনেক সমস্যা মোকাবিলা করতে হচ্ছে। ২০২৪ সাল আমাদের জন্য ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ এনে দিয়েছে।’

গত বছরের তুলনায় এ ফেব্রুয়ারিতে পোশাক রপ্তানি বৃদ্ধি পেয়েছে প্রায় ১৪%

আপডেট সময় : ০৬:৫০:২৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ মার্চ ২০২৪

নিজস্ব প্রতিনিধি :

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) জানিয়েছে, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে ৪৪৯ কোটি মার্কিন ডলার মূল্যের তৈরি পোশাক রপ্তানি করেছে বলে জানিয়েছে।

দেশের ইতিহাসে এই প্রথম ফেব্রুয়ারিতে এত বেশি তৈরি পোশাক রপ্তানি হয়েছে। তথ্য অনুযায়ী, গত বছরের ফেব্রুয়ারির তুলনায় তা ১৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ বেশি।

এর আগে, জানুয়ারিতে পোশাক রপ্তানি ৪৯৭ কোটি ডলার হওয়ায় তা নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করে। চলতি বছরের প্রথম দুই মাসে তৈরি পোশাক রপ্তানি হয়েছে ৯৪৭ কোটি ডলার।

২০২৩-২৪ অর্থবছরের হিসাব অনুযায়ী জুলাই থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তৈরি পোশাক রপ্তানি হয়েছে ৩ হাজার ২৮৬ মিলিয়ন ডলার। যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪ দশমিক ৭৭ শতাংশ বেশি।

মঙ্গলবার (৫ মার্চ) এক বিবৃতিতে বাংলাদেশ গার্মেন্টস ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিজিএমইএ) সভাপতি ফারুক হাসান বলেন, ‘এটি অবশ্যই আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে অনেক সমস্যা মোকাবিলা করতে হচ্ছে। ২০২৪ সাল আমাদের জন্য ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ এনে দিয়েছে।’