ঢাকা ০৬:৫৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ক্যাশলেস স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার কার্যক্রম শুরু

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৫:১৮:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২৩ ১০ বার পঠিত

ডেস্ক রিপোর্ট ঃ

এখন হতে সব কাজে নগদ টাকার ব্যবহার কমে আসবে। শুধুমাত্র মাত্র একটা অনলাইন ব্যাংকের অ্যাপে বাংলা কিউআর কোডের দ্বারা সব ব্যাংকের ইউজার পণ্যের ভ্যালু পরিশোধ করতে পারবেন। ব্যাংকের অ্যাপ্লিকেশন বা মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসের অ্যাপ দিয়ে পণ্য কেনাবেচায় উদ্বুদ্ধ করতেই এমন প্রচারণা।

গতকাল বুধবার ব্যাংকপাড়া হিসেবে অবগত মতিঝিল এলাকায় এ প্রচারণার আরম্ভ হয়েছে। ‘সর্বজনীন পরিশোধ সেবায় শিওর হবে স্মার্ট বাংলাদেশ’ স্লোগান সামনে রেখে প্রচরণা চালু হলো ক্যাশলেস বা নগদবিহীন বাংলাদেশ। এদিন প্রচারণার উদ্বোধন করেছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রাদেশিক শাসনকর্তা আব্দুর রউফ তালুকদার।

জানা গেছে, ইতোমধ্যে বাংলা কিউআর কোডের মাধ্যমে মতিঝিল অঞ্চলে মুদি দোকান, মুচি, চা দোকান, হোটেল এবং ভ্রাম্যমাণ বিক্রেতাদের কিউআর কোড সুবিধা দেয়া হয়েছে। এর দ্বারা সার্ভিস বিল পরিশোধ করছেন গ্রাহক। ‘ক্যাশলেস বাংলাদেশ’ উদ্যোগের আওতায় শ্রমনির্ভর অতিক্ষুদ্র ভ্রাম্যমাণ উদ্যোক্তা (সবজি বিক্রেতা, মাছ বিক্রেতা, চা বিক্রেতা, ঝালমুড়ি বিক্রেতা), বিভিন্ন প্রান্তিক পেশায় (মুচি, নাপিত, হকার) নিয়োজিত পরিসেবা প্রদানকারীদের বিল পদ্ধতিকে আধুনিক এবং প্রাতিষ্ঠানিক করার উদ্দেশ্যে ব্যক্তিক রিটেইল মেজারমেন্ট উন্মুক্ত করা হচ্ছে। এ হিসাবের দ্বারা যেসব ব্যবসায়ী, তাদের ব্যবসায়িক আদান-প্রদান সম্পন্ন করবেন, তারা মাইক্রো-মার্চেন্ট হিসেবে গণ্য হচ্ছেন।

এই উদ্যোগে জয়েন ব্যাংকগুলো হচ্ছে দি সিটি ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, পূবালী ব্যাংক, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, এবি ব্যাংক, ইস্টার্ন ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংক, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক এবং ওয়ান ব্যাংক। এছাড়াও এমএফএস প্রতিষ্ঠান বিকাশ, এমক্যাশ, রকেট ও কার্ড সেবাদাতা ইন্সটিটিউট মাস্টারকার্ড, ভিসা এবং অ্যামেক্স এই সেবায় যুক্ত হয়েছে।

ট্যাগস :

ক্যাশলেস স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার কার্যক্রম শুরু

আপডেট সময় : ০৫:১৮:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২৩

ডেস্ক রিপোর্ট ঃ

এখন হতে সব কাজে নগদ টাকার ব্যবহার কমে আসবে। শুধুমাত্র মাত্র একটা অনলাইন ব্যাংকের অ্যাপে বাংলা কিউআর কোডের দ্বারা সব ব্যাংকের ইউজার পণ্যের ভ্যালু পরিশোধ করতে পারবেন। ব্যাংকের অ্যাপ্লিকেশন বা মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসের অ্যাপ দিয়ে পণ্য কেনাবেচায় উদ্বুদ্ধ করতেই এমন প্রচারণা।

গতকাল বুধবার ব্যাংকপাড়া হিসেবে অবগত মতিঝিল এলাকায় এ প্রচারণার আরম্ভ হয়েছে। ‘সর্বজনীন পরিশোধ সেবায় শিওর হবে স্মার্ট বাংলাদেশ’ স্লোগান সামনে রেখে প্রচরণা চালু হলো ক্যাশলেস বা নগদবিহীন বাংলাদেশ। এদিন প্রচারণার উদ্বোধন করেছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রাদেশিক শাসনকর্তা আব্দুর রউফ তালুকদার।

জানা গেছে, ইতোমধ্যে বাংলা কিউআর কোডের মাধ্যমে মতিঝিল অঞ্চলে মুদি দোকান, মুচি, চা দোকান, হোটেল এবং ভ্রাম্যমাণ বিক্রেতাদের কিউআর কোড সুবিধা দেয়া হয়েছে। এর দ্বারা সার্ভিস বিল পরিশোধ করছেন গ্রাহক। ‘ক্যাশলেস বাংলাদেশ’ উদ্যোগের আওতায় শ্রমনির্ভর অতিক্ষুদ্র ভ্রাম্যমাণ উদ্যোক্তা (সবজি বিক্রেতা, মাছ বিক্রেতা, চা বিক্রেতা, ঝালমুড়ি বিক্রেতা), বিভিন্ন প্রান্তিক পেশায় (মুচি, নাপিত, হকার) নিয়োজিত পরিসেবা প্রদানকারীদের বিল পদ্ধতিকে আধুনিক এবং প্রাতিষ্ঠানিক করার উদ্দেশ্যে ব্যক্তিক রিটেইল মেজারমেন্ট উন্মুক্ত করা হচ্ছে। এ হিসাবের দ্বারা যেসব ব্যবসায়ী, তাদের ব্যবসায়িক আদান-প্রদান সম্পন্ন করবেন, তারা মাইক্রো-মার্চেন্ট হিসেবে গণ্য হচ্ছেন।

এই উদ্যোগে জয়েন ব্যাংকগুলো হচ্ছে দি সিটি ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, পূবালী ব্যাংক, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, এবি ব্যাংক, ইস্টার্ন ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংক, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক এবং ওয়ান ব্যাংক। এছাড়াও এমএফএস প্রতিষ্ঠান বিকাশ, এমক্যাশ, রকেট ও কার্ড সেবাদাতা ইন্সটিটিউট মাস্টারকার্ড, ভিসা এবং অ্যামেক্স এই সেবায় যুক্ত হয়েছে।