ঢাকা ০২:৩৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কুমিল্লাকে ১২ রানে হারিয়ে টুর্নামেন্টের চতুর্থ জয় ছিনিয়ে নিল সিলেট

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৬:১০:৪২ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ৩২ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধি :

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) রোমাঞ্চকর ম্যাচে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে হারিয়েছে সিলেট স্ট্রাইকার্স। কুমিল্লাকে ১২ রানে হারিয়ে টুর্নামেন্টের চতুর্থ জয় পায় দলটি।

সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় সিলেট। বেন হাভেলের ফিফটির ভিত্তিতে সিলেট ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭৭ রান সংগ্রহ করে। হাওয়েল ৩১ বলে ৬২ রান করে অপরাজিত থাকেন। কুমিল্লার হয়ে ২টি করে উইকেট নেন রিশাদ হোসেন ও সুনীল নারিন।

১৭৮ রানের লক্ষ্য নিয়ে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো করতে পারেনি কুমিল্লা। দলীয় ১৬ রানে ৫ বলে ৩ রান করে আউট হন ইমরুল কায়েস। এরপর ক্রিজে আসা তাওহিদ হৃদয়কে নিয়ে রানের চাকা সচল রাখেন লিটন দাস।

তবে দলের ৩৯ রানে ১৫ বলে ১৭ রান করে আউট হন হৃদয়। এরপর ক্রিজে আসা জনসন চার্লসকে নিয়ে আক্রমণাত্মক ব্যাটিং শুরু করেন লিটন। আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে ফিফটি তুলে নেন তিনি।

জনসনের সঙ্গে ৭৯ রানের জুটি গড়েন লিটন। এরপর দ্রুতই দুই উইকেট হারায় কুমিল্লা। জনসন ২১ বলে ১২ রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে ফেরেন মঈন আলি।

এরপর ক্রিজে আসা আন্দ্রে রাসেলের সঙ্গে রানের গতিতে রান তুলতে থাকেন লিটন। দলের ১৫৩ রানের লক্ষ্যে ৫৮ বলে ৮৫ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলে আউট হন লিটন। শেষ পর্যন্ত কুমিল্লা ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৬৫ রান তুলতে সক্ষম হয়। সিলেটের হয়ে ৩ উইকেট নেন তানজিম সাকিব।

কুমিল্লাকে ১২ রানে হারিয়ে টুর্নামেন্টের চতুর্থ জয় ছিনিয়ে নিল সিলেট

আপডেট সময় : ০৬:১০:৪২ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

নিজস্ব প্রতিনিধি :

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) রোমাঞ্চকর ম্যাচে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে হারিয়েছে সিলেট স্ট্রাইকার্স। কুমিল্লাকে ১২ রানে হারিয়ে টুর্নামেন্টের চতুর্থ জয় পায় দলটি।

সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় সিলেট। বেন হাভেলের ফিফটির ভিত্তিতে সিলেট ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭৭ রান সংগ্রহ করে। হাওয়েল ৩১ বলে ৬২ রান করে অপরাজিত থাকেন। কুমিল্লার হয়ে ২টি করে উইকেট নেন রিশাদ হোসেন ও সুনীল নারিন।

১৭৮ রানের লক্ষ্য নিয়ে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো করতে পারেনি কুমিল্লা। দলীয় ১৬ রানে ৫ বলে ৩ রান করে আউট হন ইমরুল কায়েস। এরপর ক্রিজে আসা তাওহিদ হৃদয়কে নিয়ে রানের চাকা সচল রাখেন লিটন দাস।

তবে দলের ৩৯ রানে ১৫ বলে ১৭ রান করে আউট হন হৃদয়। এরপর ক্রিজে আসা জনসন চার্লসকে নিয়ে আক্রমণাত্মক ব্যাটিং শুরু করেন লিটন। আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে ফিফটি তুলে নেন তিনি।

জনসনের সঙ্গে ৭৯ রানের জুটি গড়েন লিটন। এরপর দ্রুতই দুই উইকেট হারায় কুমিল্লা। জনসন ২১ বলে ১২ রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে ফেরেন মঈন আলি।

এরপর ক্রিজে আসা আন্দ্রে রাসেলের সঙ্গে রানের গতিতে রান তুলতে থাকেন লিটন। দলের ১৫৩ রানের লক্ষ্যে ৫৮ বলে ৮৫ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলে আউট হন লিটন। শেষ পর্যন্ত কুমিল্লা ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৬৫ রান তুলতে সক্ষম হয়। সিলেটের হয়ে ৩ উইকেট নেন তানজিম সাকিব।