ঢাকা ০৯:৩৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কিশোরগঞ্জে স্ত্রীকে জবাই করে হত্যায় স্বামীর মৃত্যুদণ্ড

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৭:১৯:৫৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২৩ ১৪ বার পঠিত

শফিক কবীর, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি :

কিশোরগঞ্জে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালত। এছাড়াও তাকে এক লক্ষ টাকা অর্থদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়েছে।

আজ বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক মুহাম্মদ হাবিবুল্লাহ আসামি দেলোয়ার হোসেনের উপস্থিতিতে এ রায় দেন। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি দেলোয়ার হোসেন (৩৮)করিমগঞ্জ উপজেলার কাদিরজঙ্গল ইউনিয়নের উত্তর চানপুর গ্রামের মৃত ইমাম উদ্দিনের ছেলে।

রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের স্পেশাল পিপি এডভোকেট এম. এ আফজল মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানান, ২০১৮ সালে ইটনা উপজেলার লাইমপাশা গ্রামের আহসান মোস্তফার মেয়ে প্রজ্ঞা মোস্তফার পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় দেলোয়ারের সাথে বিয়ের তিন মাস পর বিদেশ চলে যান দেলোয়ার। সেখান থেকে দুই মাস পর খালি হাতে দেশে ফিরেন তিনি। তখন থেকেই বিভিন্ন সময় যৌতুকের জন্য চাপ দিতে থাকেন স্ত্রী প্রজ্ঞাকে। কিন্তু বাবার বাড়ি থেকে যৌতুক এনে দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন প্রজ্ঞা। এ নিয়ে প্রায়ই তাকে শারীরিক নির্যাতন করতেন স্বামী দেলোয়ার। ২০১৯ সালের ২১ মার্চ সকালে আবারও যৌতুকের জন্য চাপ দিলে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে গরু জবাই করার ছুরি দিয়ে প্রজ্ঞাকে জবাই করে পালিয়ে যান দেলোয়ার। ঐদিন বিকালে প্রজ্ঞার বাবা আহসান মোস্তফা বাদী হয়ে দেলোয়ারকে একমাত্র আসামি করে করিমগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। রাতেই দেলোয়ারকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠায় পুলিশ। কিছুদিন হাজত পাস করার পর জামিনে মুক্তি পেয়ে পালিয়ে যান তিনি। পুনরায় তাকে গ্রেফতার করে করিমগঞ্জ থানা পুলিশ। দাম্পত্য জীবনে তাদের (হত্যাকাণ্ডের সময় তিন মাসের) একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

করিমগঞ্জ থানার তৎকালীন উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবদুল্লাহ আল মাসুদ মামলাটি তদন্ত করে ২০১৯ সালের ২৯ জুলাই আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আদালত মামলাটি সম্পর্কে বিস্তারিত পর্যালোচনা করে আজ এ রায় দেন। মামলার বাদী আহসান মোস্তফা রায়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন ও দ্রুত এ রায় কার্যকরের আহ্বান জানান।

 

ট্যাগস :

কিশোরগঞ্জে স্ত্রীকে জবাই করে হত্যায় স্বামীর মৃত্যুদণ্ড

আপডেট সময় : ০৭:১৯:৫৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২৩

শফিক কবীর, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি :

কিশোরগঞ্জে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালত। এছাড়াও তাকে এক লক্ষ টাকা অর্থদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়েছে।

আজ বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক মুহাম্মদ হাবিবুল্লাহ আসামি দেলোয়ার হোসেনের উপস্থিতিতে এ রায় দেন। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি দেলোয়ার হোসেন (৩৮)করিমগঞ্জ উপজেলার কাদিরজঙ্গল ইউনিয়নের উত্তর চানপুর গ্রামের মৃত ইমাম উদ্দিনের ছেলে।

রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের স্পেশাল পিপি এডভোকেট এম. এ আফজল মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানান, ২০১৮ সালে ইটনা উপজেলার লাইমপাশা গ্রামের আহসান মোস্তফার মেয়ে প্রজ্ঞা মোস্তফার পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় দেলোয়ারের সাথে বিয়ের তিন মাস পর বিদেশ চলে যান দেলোয়ার। সেখান থেকে দুই মাস পর খালি হাতে দেশে ফিরেন তিনি। তখন থেকেই বিভিন্ন সময় যৌতুকের জন্য চাপ দিতে থাকেন স্ত্রী প্রজ্ঞাকে। কিন্তু বাবার বাড়ি থেকে যৌতুক এনে দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন প্রজ্ঞা। এ নিয়ে প্রায়ই তাকে শারীরিক নির্যাতন করতেন স্বামী দেলোয়ার। ২০১৯ সালের ২১ মার্চ সকালে আবারও যৌতুকের জন্য চাপ দিলে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে গরু জবাই করার ছুরি দিয়ে প্রজ্ঞাকে জবাই করে পালিয়ে যান দেলোয়ার। ঐদিন বিকালে প্রজ্ঞার বাবা আহসান মোস্তফা বাদী হয়ে দেলোয়ারকে একমাত্র আসামি করে করিমগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। রাতেই দেলোয়ারকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠায় পুলিশ। কিছুদিন হাজত পাস করার পর জামিনে মুক্তি পেয়ে পালিয়ে যান তিনি। পুনরায় তাকে গ্রেফতার করে করিমগঞ্জ থানা পুলিশ। দাম্পত্য জীবনে তাদের (হত্যাকাণ্ডের সময় তিন মাসের) একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

করিমগঞ্জ থানার তৎকালীন উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবদুল্লাহ আল মাসুদ মামলাটি তদন্ত করে ২০১৯ সালের ২৯ জুলাই আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আদালত মামলাটি সম্পর্কে বিস্তারিত পর্যালোচনা করে আজ এ রায় দেন। মামলার বাদী আহসান মোস্তফা রায়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন ও দ্রুত এ রায় কার্যকরের আহ্বান জানান।