ঢাকা ০৭:২৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কিশোরগঞ্জে আলোচিত সাতসকালে চুরির দুইচোর আটক, জেলা পুলিশের প্রেস ব্রিফিং

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৫:৪৬:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ৩১ বার পঠিত

শফিক কবীর, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি:
কিশোরগঞ্জ জেলার কটিয়াদী উপজেলার গচিহাটা বাজারের মাইশা ক্লথ স্টোর এন্ড পর্দা গ্যালারীতে গত ২৭ ডিসেম্বর ২০২২ সকালে সাধারণ মানুষের বেশে প্রকাশ্যে জনগণের সামনে নগদ টাকাসহ আনুমানিক ৫ লক্ষাধিক টাকার বিভিন্ন প্রকারের কাপড় চুরি করে গাড়ি করে নিয়ে যায় সুমন ও সোহাগ নামের দুই চোর।
পরে, আব্দুল্লাহ আল কাইয়ুম বাদী হয়ে কটিয়াদি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।সিসি ক্যামেরার ফুটেজে গাড়ির নম্বর ও চোরের ছবি নির্ধারণ করতে বেগ পেতে হয় পুলিশকে। পরে কটিয়াদী থানা থেকে কিশোরগঞ্জ ডিবি পুলিশের হাতে মামলাটি হস্তান্তর পূর্বক অভিযান পরিচালনা করা হয়।
পরবর্তীতে তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে চোরাই কাজে ব্যবহৃত প্রাইভেট কারটি সনাক্ত করা হয়। সেই প্রাইভেট কারের সূত্র ধরে গত সোমবার উক্ত চুরির সাথে জড়িত দুইজন চোরকে গ্রেফতার করে তাদের দেওয়া তথ্য মতে চোরাই মালামাল বিক্রির সর্বমোট ১,৩৪,৫০০/- টাকা উদ্ধার করা হয়। চোরাই যাওয়া মালামাল বিক্রির টাকা ও চুরাই কাজে ব্যবহৃত প্রাইভেট কারটি জব্দ করা হয়।
চোর মোঃ সুমন মিয়া(৪০) বাজিতপুর উপজেলার নবুরিয়া গ্রামের মৃত গোলাম মোহাম্মদ এর ছেলে ও মোঃ সোহাগ মিয়া (৪০) কিশোরগঞ্জ সদরের বয়লা এলাকার মৃত আঃ জলিল মিয়ার ছেলে। আসামীদের অন্য কোন পেশা নাই। তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক চুরির মামলা রয়েছে।
গতকাল ১২টায় পুলিশ সুপার কার্যালয়ের কনফারেন্স রুমে প্রেস ব্রিফিংয়ে বিষয়টি নিশ্চিত করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মোহাম্মদ নূরে আলম। এ সময় হোসেনপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ , পুলিশ সুপার সুজন চন্দ্র সরকার, ডিবি পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ সামছুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কিশোরগঞ্জে আলোচিত সাতসকালে চুরির দুইচোর আটক, জেলা পুলিশের প্রেস ব্রিফিং

আপডেট সময় : ০৫:৪৬:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

শফিক কবীর, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি:
কিশোরগঞ্জ জেলার কটিয়াদী উপজেলার গচিহাটা বাজারের মাইশা ক্লথ স্টোর এন্ড পর্দা গ্যালারীতে গত ২৭ ডিসেম্বর ২০২২ সকালে সাধারণ মানুষের বেশে প্রকাশ্যে জনগণের সামনে নগদ টাকাসহ আনুমানিক ৫ লক্ষাধিক টাকার বিভিন্ন প্রকারের কাপড় চুরি করে গাড়ি করে নিয়ে যায় সুমন ও সোহাগ নামের দুই চোর।
পরে, আব্দুল্লাহ আল কাইয়ুম বাদী হয়ে কটিয়াদি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।সিসি ক্যামেরার ফুটেজে গাড়ির নম্বর ও চোরের ছবি নির্ধারণ করতে বেগ পেতে হয় পুলিশকে। পরে কটিয়াদী থানা থেকে কিশোরগঞ্জ ডিবি পুলিশের হাতে মামলাটি হস্তান্তর পূর্বক অভিযান পরিচালনা করা হয়।
পরবর্তীতে তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে চোরাই কাজে ব্যবহৃত প্রাইভেট কারটি সনাক্ত করা হয়। সেই প্রাইভেট কারের সূত্র ধরে গত সোমবার উক্ত চুরির সাথে জড়িত দুইজন চোরকে গ্রেফতার করে তাদের দেওয়া তথ্য মতে চোরাই মালামাল বিক্রির সর্বমোট ১,৩৪,৫০০/- টাকা উদ্ধার করা হয়। চোরাই যাওয়া মালামাল বিক্রির টাকা ও চুরাই কাজে ব্যবহৃত প্রাইভেট কারটি জব্দ করা হয়।
চোর মোঃ সুমন মিয়া(৪০) বাজিতপুর উপজেলার নবুরিয়া গ্রামের মৃত গোলাম মোহাম্মদ এর ছেলে ও মোঃ সোহাগ মিয়া (৪০) কিশোরগঞ্জ সদরের বয়লা এলাকার মৃত আঃ জলিল মিয়ার ছেলে। আসামীদের অন্য কোন পেশা নাই। তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক চুরির মামলা রয়েছে।
গতকাল ১২টায় পুলিশ সুপার কার্যালয়ের কনফারেন্স রুমে প্রেস ব্রিফিংয়ে বিষয়টি নিশ্চিত করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মোহাম্মদ নূরে আলম। এ সময় হোসেনপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ , পুলিশ সুপার সুজন চন্দ্র সরকার, ডিবি পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ সামছুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।