ঢাকা ০৬:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাকিব খান তৃতীয় পাত্রীর সন্ধানে!

বিনোদন ডেস্ক:
  • আপডেট সময় : ০৭:৩০:৫৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ মে ২০২৪ ২৮ বার পঠিত

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রজগতে দর্শকপ্রিয়তার শীর্ষস্থান দখল করে আছেন তিনি। প্রকৃত নাম মাসুদ রানা। ভক্তরা কখনো কিং খান, কখনো ভাইজানও বলেও ডাকেন। বছরের পর বছর ঢাকাই সিনেমার একচ্ছত্র অধিপতি। তিনি আর কেউ নন শাকিব খান।

১৯৯৯ সালে ‘অনন্ত ভালোবাসা’ চলচ্চিত্র থেকে শুরু হয় শাকিবের অথিনয় যাত্রা। সিনেমাটি বাণিজ্যিকভাবে খুব একটা সফল না হলেও নায়ক হিসেবে শাকিব খান চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। অবশ্য এই বছরই ‘সবাই তো সুখী হতে চায়’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তিনি প্রথম ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়েছিলেন। এরপর থেকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। আর বর্তমানে এই নায়কের জনপ্রিয়তা শুধু দেশেই সীমাবদ্ধ নয়, বিদেশেও ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে তাঁর লাখ লাখ ভক্ত। টালিউডেও তাঁর পরিচিতি রয়েছে।

করোনার দুঃসময় পেরিয়ে গত বছর ‘প্রিয়তমা’ দিয়ে সবাইকে যেন তিনি জানিয়ে গেলেন, এত বছর পরও ফুরিয়ে যাননি তিনি। বাণিজ্যিক সিনেমার বিবেচনায় শাকিব একজনই। তাঁর সময়ে তাঁর সমকক্ষ এখনো কেউ হতে পারেননি।

‘প্রিয়তমা’র রাজত্বের পর এবারের ঈদ-উল-ফিতরে এসেছে বিগ বাজেটের সিনেমা ‘রাজকুমার’। শুধু তাই নয়, আসছে কোরবানির ঈদ উপলক্ষেও আসছে তাঁর ‘তুফান’। ইতোমধ্যে সিনেমার ট্রেলারও প্রকাশ হয়েছে।

অভিনয়জীবনে শাকিব চূড়ান্ত সফল হলেও তাঁর ব্যক্তিজীবন নিয়ে আছে সমালোচনাও। ঢালিউড অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস এবং পরবর্তীতে শবনম বুবলীর সঙ্গে ব্যক্তিগত জীবন জড়িয়ে বিতর্ক তৈরি করেছেন নায়ক। দুই নায়িকার ঘরেই আছে শাকিব খানের দুই সন্তান জয়-বীর। অপু-বুবলীর সঙ্গে বৈবাহিক সম্পর্ক না টিকলেও সন্তানদের দেখভাল করছেন শাকিব, নিয়ম করে সময়ও দেন। দুই সন্তানকে ভালোবাসেন শাকিব। এমনকি সম্প্রতি জানা গেছে তৃতীয়বারের মতো বিয়ে করতে যাচ্ছেন এই নায়ক।

শাকিব খানের উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রের মধ্যে-স্বপ্নের বাসর, প্রাণের মানুষ ডাক্তার বাড়ি, ১ টাকার বউ ও আমার স্বপ্ন তুমি সিনেমা বাম্পার হিট হয়।

অভিনয়ের স্বীকৃতি হিসেবে ২০১২ সালে ‘ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না’, ২০১৪ সালে ‘খোদার পরে মা’ এবং ২০১৬ সালের ‘আরও ভালোবাসব তোমায়’, ২০১৭ সালে ‘সত্তা’ ছবির জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন শাকিব খান। অভিনয়ে যাত্রা শুরুর পর থেকেই আর পেছনে ফিরে তাকাননি শাকিব। তাঁর সময়ের বহু নামকরা নায়ক এখন আর পর্দায় নেই। অথচ শাকিব এখনো হিরো, আগের চেয়ে যেন বেশি তারুণ্যে ভরপুর এই নায়ক।

শাকিব খান তৃতীয় পাত্রীর সন্ধানে!

আপডেট সময় : ০৭:৩০:৫৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ মে ২০২৪

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রজগতে দর্শকপ্রিয়তার শীর্ষস্থান দখল করে আছেন তিনি। প্রকৃত নাম মাসুদ রানা। ভক্তরা কখনো কিং খান, কখনো ভাইজানও বলেও ডাকেন। বছরের পর বছর ঢাকাই সিনেমার একচ্ছত্র অধিপতি। তিনি আর কেউ নন শাকিব খান।

১৯৯৯ সালে ‘অনন্ত ভালোবাসা’ চলচ্চিত্র থেকে শুরু হয় শাকিবের অথিনয় যাত্রা। সিনেমাটি বাণিজ্যিকভাবে খুব একটা সফল না হলেও নায়ক হিসেবে শাকিব খান চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। অবশ্য এই বছরই ‘সবাই তো সুখী হতে চায়’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তিনি প্রথম ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়েছিলেন। এরপর থেকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। আর বর্তমানে এই নায়কের জনপ্রিয়তা শুধু দেশেই সীমাবদ্ধ নয়, বিদেশেও ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে তাঁর লাখ লাখ ভক্ত। টালিউডেও তাঁর পরিচিতি রয়েছে।

করোনার দুঃসময় পেরিয়ে গত বছর ‘প্রিয়তমা’ দিয়ে সবাইকে যেন তিনি জানিয়ে গেলেন, এত বছর পরও ফুরিয়ে যাননি তিনি। বাণিজ্যিক সিনেমার বিবেচনায় শাকিব একজনই। তাঁর সময়ে তাঁর সমকক্ষ এখনো কেউ হতে পারেননি।

‘প্রিয়তমা’র রাজত্বের পর এবারের ঈদ-উল-ফিতরে এসেছে বিগ বাজেটের সিনেমা ‘রাজকুমার’। শুধু তাই নয়, আসছে কোরবানির ঈদ উপলক্ষেও আসছে তাঁর ‘তুফান’। ইতোমধ্যে সিনেমার ট্রেলারও প্রকাশ হয়েছে।

অভিনয়জীবনে শাকিব চূড়ান্ত সফল হলেও তাঁর ব্যক্তিজীবন নিয়ে আছে সমালোচনাও। ঢালিউড অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস এবং পরবর্তীতে শবনম বুবলীর সঙ্গে ব্যক্তিগত জীবন জড়িয়ে বিতর্ক তৈরি করেছেন নায়ক। দুই নায়িকার ঘরেই আছে শাকিব খানের দুই সন্তান জয়-বীর। অপু-বুবলীর সঙ্গে বৈবাহিক সম্পর্ক না টিকলেও সন্তানদের দেখভাল করছেন শাকিব, নিয়ম করে সময়ও দেন। দুই সন্তানকে ভালোবাসেন শাকিব। এমনকি সম্প্রতি জানা গেছে তৃতীয়বারের মতো বিয়ে করতে যাচ্ছেন এই নায়ক।

শাকিব খানের উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রের মধ্যে-স্বপ্নের বাসর, প্রাণের মানুষ ডাক্তার বাড়ি, ১ টাকার বউ ও আমার স্বপ্ন তুমি সিনেমা বাম্পার হিট হয়।

অভিনয়ের স্বীকৃতি হিসেবে ২০১২ সালে ‘ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না’, ২০১৪ সালে ‘খোদার পরে মা’ এবং ২০১৬ সালের ‘আরও ভালোবাসব তোমায়’, ২০১৭ সালে ‘সত্তা’ ছবির জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন শাকিব খান। অভিনয়ে যাত্রা শুরুর পর থেকেই আর পেছনে ফিরে তাকাননি শাকিব। তাঁর সময়ের বহু নামকরা নায়ক এখন আর পর্দায় নেই। অথচ শাকিব এখনো হিরো, আগের চেয়ে যেন বেশি তারুণ্যে ভরপুর এই নায়ক।