ঢাকা ০৯:৪০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কন্ঠশিল্পী ফাহমিদা নবীর কথা

বিনোদন ডেস্ক:
  • আপডেট সময় : ০৪:০৮:২৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪ ৪১ বার পঠিত

‘লুকোচুরি লুকোচুরি গল্প, তারপর হাতছানি অল্প, চায় চায় উড়তে উড়তে, মন চায় উড়তে উড়তে’ গানের কথাগুলো পড়তে পড়তে যার মুখ ভেসে ওঠে চোখের সামনে তিনি সবার প্রিয় সংগীতশিল্পী ফাহমিদা নবী। যিনি সংগীত অঙ্গনের অন্যতম উজ্জ্বল নক্ষত্র। তার গাওয়া বেশিরভাগ গানই পেয়েছে দর্শকপ্রিয়তা।

ফাহমিদা ১৯৭৯ সালে তার গায়িকা জীবন শুরু করেন এবং তিন যুগ ধরে সাফল্যের সাথে গান গেয়ে যাচ্ছেন। তিনি উপমহাদেশীয় আধুনিক এবং ক্ল্যাসিকাল গান গেয়ে থাকেন। এছাড়া তিনি রবীন্দ্র সঙ্গীত এবং নজরুল সঙ্গীতও গেয়ে থাকেন।

২০১১ সালে তিনি ড. সেলিম আল দীন-এর লেখা ১০টি গান নিয়ে ‘আকাশ ও সমুদ্র অপার’ নামের একটি অ্যালবাম বের করেন। বাপ্পা মজুমদারের সাথে যৌথভাবে তিনি ২০০৬ সালে বের করেন অ্যালবাম- এক মুঠো গান-১। ২০১০ সালের ভালোবাসা দিবসে বের হয় তার দ্বিতীয় অ্যালবাম- এক মুঠো গান-২।

গুণী এ কণ্ঠশিল্পী উপহার দিয়েছেন বেশকিছু জনপ্রিয় অ্যালবাম। এর মধ্যে ‘দুপুরে একলা পাখি’, ‘তুমি কি সেই তুমি, ‘মনে কি পড়ে না’, ‘চারটা দেয়াল হঠাৎ খেয়াল’, ‘তবু বৃষ্টি চাই’, ‘ইচ্ছে হয়’, ‘আমারে ছুঁয়েছিলে’ (নজরুলগীতি), ‘তুমি অভিমানে’ প্রভৃতি উল্লেখরেযাগ্য।

২০০৭ সালে চলচ্চিত্র, টেলিভিশন ও সঙ্গীতে অবদানের জন্য ফাহমিদা নবী জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। এবং এনামুল করিম নির্ঝর পরিচালিত আহা! চলচ্চিত্রে ‘লুকোচুরি লুকোচুরি গল্প’ গানটিতে কণ্ঠ দিয়ে ২০০৮ সালে তিনি শ্রেষ্ঠ প্লেব্যাক শিল্পী হিসেবে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার অর্জন করেন।

তিনি ২০০৫ সাল থেকে ক্লোজআপ ওয়ান রিয়েলিটি শো’র বিচারক হিসাবে কাজ করছেন।

কন্ঠশিল্পী ফাহমিদা নবীর কথা

আপডেট সময় : ০৪:০৮:২৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

‘লুকোচুরি লুকোচুরি গল্প, তারপর হাতছানি অল্প, চায় চায় উড়তে উড়তে, মন চায় উড়তে উড়তে’ গানের কথাগুলো পড়তে পড়তে যার মুখ ভেসে ওঠে চোখের সামনে তিনি সবার প্রিয় সংগীতশিল্পী ফাহমিদা নবী। যিনি সংগীত অঙ্গনের অন্যতম উজ্জ্বল নক্ষত্র। তার গাওয়া বেশিরভাগ গানই পেয়েছে দর্শকপ্রিয়তা।

ফাহমিদা ১৯৭৯ সালে তার গায়িকা জীবন শুরু করেন এবং তিন যুগ ধরে সাফল্যের সাথে গান গেয়ে যাচ্ছেন। তিনি উপমহাদেশীয় আধুনিক এবং ক্ল্যাসিকাল গান গেয়ে থাকেন। এছাড়া তিনি রবীন্দ্র সঙ্গীত এবং নজরুল সঙ্গীতও গেয়ে থাকেন।

২০১১ সালে তিনি ড. সেলিম আল দীন-এর লেখা ১০টি গান নিয়ে ‘আকাশ ও সমুদ্র অপার’ নামের একটি অ্যালবাম বের করেন। বাপ্পা মজুমদারের সাথে যৌথভাবে তিনি ২০০৬ সালে বের করেন অ্যালবাম- এক মুঠো গান-১। ২০১০ সালের ভালোবাসা দিবসে বের হয় তার দ্বিতীয় অ্যালবাম- এক মুঠো গান-২।

গুণী এ কণ্ঠশিল্পী উপহার দিয়েছেন বেশকিছু জনপ্রিয় অ্যালবাম। এর মধ্যে ‘দুপুরে একলা পাখি’, ‘তুমি কি সেই তুমি, ‘মনে কি পড়ে না’, ‘চারটা দেয়াল হঠাৎ খেয়াল’, ‘তবু বৃষ্টি চাই’, ‘ইচ্ছে হয়’, ‘আমারে ছুঁয়েছিলে’ (নজরুলগীতি), ‘তুমি অভিমানে’ প্রভৃতি উল্লেখরেযাগ্য।

২০০৭ সালে চলচ্চিত্র, টেলিভিশন ও সঙ্গীতে অবদানের জন্য ফাহমিদা নবী জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। এবং এনামুল করিম নির্ঝর পরিচালিত আহা! চলচ্চিত্রে ‘লুকোচুরি লুকোচুরি গল্প’ গানটিতে কণ্ঠ দিয়ে ২০০৮ সালে তিনি শ্রেষ্ঠ প্লেব্যাক শিল্পী হিসেবে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার অর্জন করেন।

তিনি ২০০৫ সাল থেকে ক্লোজআপ ওয়ান রিয়েলিটি শো’র বিচারক হিসাবে কাজ করছেন।