ঢাকা ০৫:০৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অ্যান্টিবায়োটিক সেবন এর পর যেসব খাবার এড়িয়ে চলবেন

বাংলাদেশ কণ্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০২:১১:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৩ ১৬ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধি:

আধুনিক জীবনধারা, বাইরের খাবার খাওয়ার প্রবণতা, পানি কম পান করা, শরীরের যথেষ্ট যত্ন না নেওয়াসহ নানা কারণে শরীরে বাসা বাঁধে নানা রোগ। ডায়াবেটিস, কোলেস্টেরল, থাইরয়েড রোগ এখন দৈনন্দিন জীবনের অংশ হয়ে গেছে। ফলে সুস্থ থাকার জন্য ওষুধ খেতে হবে।

অনেকেই নিয়মিত অ্যান্টিবায়োটিক খান। তবে কিছু কিছু খাবার আছে, যেগুলো ওষুধের সাথে নিলে সমস্যা হতে পারে।
দুগ্ধজাত খাবার: দুধ শরীরের জন্য উপকারী এবং স্বাস্থ্যকর। তবে অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ খাওয়ার সময় দুধ এড়িয়ে চলাই ভালো। এটি ওষুধের কার্যকারিতা হ্রাস করে। একই সময়ে, দুধ কোন উপকার দেয় না। দুধে পর্যাপ্ত পরিমাণে ম্যাগনেসিয়াম, প্রোটিন শরীর পায় না। তাই অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়ার সময় দুধ না খাওয়াই ভালো।
কয়েকটি সবজি: যেকোনো শারীরিক অসুস্থতায় সবজি খাওয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। কিন্তু কিছু সবজি আছে, যা অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়ার সময় খাওয়া উচিত নয়। ভিটামিন কে সমৃদ্ধ সবজি বা ব্রকলি অ্যান্টিবায়োটিকের প্রভাব কমায়। তাই অ্যান্টিবায়োটিক সেবনের সময় খাওয়া-দাওয়ার বিষয়ে চিকিৎসকের সঙ্গে আলোচনা করা জরুরি।

অ্যালকোহলযুক্ত পানীয়: ডাক্তাররা যে কোনও ওষুধ খাওয়ার সময় অ্যালকোহল পান না করার পরামর্শ দেন। এটি শরীরের উপর একটি খুব ক্ষতিকারক প্রভাব ফেলে। ওষুধ ও অ্যালকোহল একসঙ্গে গ্রহণ করলে লিভারের ওপর প্রভাব পড়তে পারে। ফলে লিভারের বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়।

অ্যান্টিবায়োটিক সেবন এর পর যেসব খাবার এড়িয়ে চলবেন

আপডেট সময় : ০২:১১:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৩

নিজস্ব প্রতিনিধি:

আধুনিক জীবনধারা, বাইরের খাবার খাওয়ার প্রবণতা, পানি কম পান করা, শরীরের যথেষ্ট যত্ন না নেওয়াসহ নানা কারণে শরীরে বাসা বাঁধে নানা রোগ। ডায়াবেটিস, কোলেস্টেরল, থাইরয়েড রোগ এখন দৈনন্দিন জীবনের অংশ হয়ে গেছে। ফলে সুস্থ থাকার জন্য ওষুধ খেতে হবে।

অনেকেই নিয়মিত অ্যান্টিবায়োটিক খান। তবে কিছু কিছু খাবার আছে, যেগুলো ওষুধের সাথে নিলে সমস্যা হতে পারে।
দুগ্ধজাত খাবার: দুধ শরীরের জন্য উপকারী এবং স্বাস্থ্যকর। তবে অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ খাওয়ার সময় দুধ এড়িয়ে চলাই ভালো। এটি ওষুধের কার্যকারিতা হ্রাস করে। একই সময়ে, দুধ কোন উপকার দেয় না। দুধে পর্যাপ্ত পরিমাণে ম্যাগনেসিয়াম, প্রোটিন শরীর পায় না। তাই অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়ার সময় দুধ না খাওয়াই ভালো।
কয়েকটি সবজি: যেকোনো শারীরিক অসুস্থতায় সবজি খাওয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। কিন্তু কিছু সবজি আছে, যা অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়ার সময় খাওয়া উচিত নয়। ভিটামিন কে সমৃদ্ধ সবজি বা ব্রকলি অ্যান্টিবায়োটিকের প্রভাব কমায়। তাই অ্যান্টিবায়োটিক সেবনের সময় খাওয়া-দাওয়ার বিষয়ে চিকিৎসকের সঙ্গে আলোচনা করা জরুরি।

অ্যালকোহলযুক্ত পানীয়: ডাক্তাররা যে কোনও ওষুধ খাওয়ার সময় অ্যালকোহল পান না করার পরামর্শ দেন। এটি শরীরের উপর একটি খুব ক্ষতিকারক প্রভাব ফেলে। ওষুধ ও অ্যালকোহল একসঙ্গে গ্রহণ করলে লিভারের ওপর প্রভাব পড়তে পারে। ফলে লিভারের বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়।